প্রাথমিকে ৪৩২০ জন প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেবে সরকার

primary-schoolসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪ হাজার ৩শ’ ২০ জন প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেবে সরকার। এ নিয়োগ পক্রিয়ার জন্য ইতিমধ্যে সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) চাহিদাপত্র পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। পিএসসির মাধ্যমে প্রাথমিকে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো নিয়োগ দেওয়া হবে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলেও সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

বর্তমানে ৬৩ হাজার ৪১টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৫ হাজারেরও বেশি স্কুলে প্রধান শিক্ষক পদ শূন্য রয়েছে। গত বছর পিএসসির মাধ্যমে ৮৯৮ জন প্রধান শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ করা হলেও বিভিন্ন জটিলতার কারণে ৪৭০ জনকে নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হয়। এখনো দেশে প্রায় ১০ হাজার প্রধান শিক্ষক পদ শূন্য রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, এ নিয়োগ প্রক্রিয়ায় সহকারী শিক্ষকদের মধ্য থেকে ৬৫ শতাংশ পদোন্নতি এবং বাকি ৩৫ শতাংশ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে নিয়োগ দেওয়া হবে। পিএসসির সুপারিশ পেলেই আমরা এ নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করবো।

প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য সম্প্রতি পিএসসিতে নতুন করে ৪ হাজার ৩শ’ ২০ জনের চাহিদা প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। নীতিমালা অনুযায়ী পিএসসির মাধ্যমে ৩৫ শতাংশ এবং পদোন্নতির মাধ্যমে ৬৫ শতাংশ শূন্য পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সুপারিশ অনুযায়ী নতুন করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে পিএসসি। প্রধান শিক্ষকরা দ্বিতীয় শ্রেণির নন-ক্যাডার পদের মর্যাদা প্রাপ্ত হবেন।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য থাকায় পাঠদান বিঘ্নিত হচ্ছিল। এ কারণে সহকারী শিক্ষকদের চলতি দায়িত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।