আগামী বছর থেকে নতুন পদ্ধতিতে এসএসসি পরীক্ষা

ssc examআগামী বছর থেকে নতুন পদ্ধতিতে এসএসসি পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসাইন। তিনি জানিয়েছেন, ছাপা নয়, কোনো ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস দিয়ে সরাসরি পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা যায় কি না- ভাবা হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার বিকেলে প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে সংশ্লিষ্টদেরকে নিয়ে সমন্বয় সভা শেষে তিনি এসব কথা জানান।

বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জাব্বারসহ ছাড়া পুলিশ, র‌্যাব ও গোয়েন্দাসহ এ কার্যক্রমের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১৮টি সংস্থার প্রতিনিধি সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সোহরাব হোসাইন জানান, ফাঁস ঠেকাতে ছাপা প্রশ্নপত্র পদ্ধতিতে পরীক্ষা না নেওয়ার কথা ভাবছে সরকার। কোনো ডিভাইস দিয়ে সরাসরি পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা যায় কি না- ভাবা হচ্ছে।

তিনি বলেন, এমন পদ্ধতি তৈরি করা প্রয়োজন যে পদ্ধতিতে প্রশ্নপত্র ছাপানো হবে না, বিতরণও করা হবে না। তাহলেই ফাঁস হওয়ার সুযোগ থাকবে না।

সোহরাব হোসাইন বলেন, আমি যেটা মনে করি, প্রশ্নপত্র ছাপিয়ে কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়ার যে প্রক্রিয়া এখন আছে, এ পদ্ধতিতে কোনোভাবে প্রশ্নফাঁস ঠেকানো সম্ভব হবে না।

এসময় শিক্ষা সচিব জানান, আসন্ন এইচএসসি পরীক্ষা নির্বিঘ্ন করতে নানামূখী পদক্ষেপ নেয়া হবে। তবে সারাদেশের অধিকাংশ শিক্ষার্থীর কথা বিবেচনায় নিয়ে এবারের পরীক্ষা বাতিলের চিন্তাভাবনা নেই।

সোহরাব হোসেন বলেন, আমরা আজ বসেছি সবচেয়ে হাইয়েস্ট লেভেল। যেসব মন্ত্রণালয় পরীক্ষা গ্রহণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট, সেসব মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, সচিব ও উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা আজকের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। যে পরীক্ষাগুলো বাকি আছে এবং যেগুলো শেষ হয়েছে, সে বিষয়ে একটি পর্যালোচনা হয়েছে।

তিনি বলেন, আগামী এইচএসসি পরীক্ষায় নতুন কী ধরনের পদ্ধতি বাস্তবায়ন করা যায়- তা নিয়েও কথা হয়েছে। যেহেতু এইচএসসি পরীক্ষার মাত্র দেড় মাস বাকি রয়েছে- তাই এ বিষয়ে আগাম প্রস্তুতি স্বরূপ কোন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা যায় তা নিয়ে সভায় কথা হয়েছে।

প্রশ্নফাঁসে জড়িতদের শাস্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দেখুন, এ পর্যন্ত ৫২টি মামলা হয়েছে, ১৫২ জনকে আটক করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে।

বহু নির্বাচনী প্রশ্ন (এমসিকিউ) নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ প্রসঙ্গে সোহরাব হোসাইন বলেন, এমসিকিউ বাতিলের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী যেটা বলেছেন, তা আমাদের জন্য নির্দেশ। যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বন্ধ করতে হয়, সেই প্রক্রিয়ায় আমাদের আসতে হবে। এ নিয়ে আমি হঠাৎ করে কিছু বলতে পারব না।

সৌজন্যে- অর্থসূচক