বিমানের সবচেয়ে নিরাপদ আসন

bimanটাইম ম্যাগাজিন গত ৩৫ বছরের বিমান দুর্ঘটনার তথ্য প্রমাণের উপর ভিত্তি করে একটা পরিসংখ্যান দিয়েছেন বিমানের কোথায় বসলে আপনি সবচেয়ে নিরাপদ! তারা মুলত ১৯৮৫ সাল থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ঘটে যাওয়া ১৭টি বিমান দুর্ঘটনার তথ্য প্রমাণ বিশ্লেষণ করে এ পরিসংখ্যান দিয়েছেন।

টাইম ম্যাগাজিন গত ৩৫ বছরের বিমান দুর্ঘটনাগুলো তদন্ত রিপোর্ট থেকে বেঁচে যাওয়া এবং মারা যাওয়া মানুষগুলোর আসন বিন্যাস পরীক্ষা করে একটা সিদ্ধান্তে এসে পৌছেছেন। তারা বলেন, ‘আমরা ১৭টি দুর্ঘটনা কবলিত বিমানের আসন বিন্যাস বিশ্লেষণ করেছি, সবচেয়ে আগের দুর্ঘটনাটি হলো ১৯৮৫ সালের এবং সবচেয়ে নতুনটি ২০০০ সালে ঘটে যাওয়া।

বিশ্লেষণে দেখা গেছে বিমানের সবচেয়ে পেছনের অংশের আসনগুলোতে মারা যাওয়ার হার ৩২ শতাংশ, মাঝের অংশে মারা যাওয়ার হার ৩৯ শতাংশ এবং একেবারে সামনের অংশে মারা যাওয়ার হার ৩৮ শতাংশ।

biman-seatসারির অবস্থান হিসেব করলে আরো পরিষ্কারভাবে বলা যায়, বিমানের পেছনের অংশের মাঝামাঝি আসনগুলোতে মারা যাওয়ার হার সবচেয়ে কম, মাত্র ২৮ শতাংশ। অন্যদিকে মাঝের অংশের করিডোরে বসা মানুষগুলোর মারা যাওয়ার হার সবচেয়ে বেশি, প্রায় ৪৪ শতাংশ।

গ্রীনউইচ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণাতে দেখা গেছে যারা জরুরী নির্গমন পথে কাছাকাছি বসেন তাদের বেঁচে যাওয়ার হার সবচেয়ে বেশি। আপনি যদি প্রথম আঘাত থেকে বেঁচে যান এবং দ্রুত বিমান ত্যাগ করতে পারেন তবে আপনার বেঁচে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

পপুলার মেকানিক্স এর একটা রিপোর্টে দেখা গেছে পেছনের অংশে বসলে বাঁচার সম্ভাবনা ৬৯ শতাংশ, মাঝের অংশে বাঁচার সম্ভাবনা ৫৬ শতাংশ এবং একেবারে সামনের অংশে বাঁচার সম্ভাবনা ৪৯ শতাংশ।

biman-seatসামনের অংশে অর্থাৎ বিজনেস ক্লাস বা ফার্স্ট ক্লাসে বসলে আপনার সুবিধা হলো আপনি চালকের শেষ মুহুর্তের কাজ সম্পর্কে ধারণা রাখতে পারবেন যার দ্বারা আপনি নিজে কি করতে যাচ্ছেন তা নির্ধারণ করা সহজ হবে।

মাঝের অংশে বসার ক্ষেত্রে যুক্তি হতে পারে, বিমান সামনের দিকে আছড়ে পড়ুক আর পেছনের দিকে পড়ুক নিজেকে সামলে নেয়ার কিছুটা সুযোগ আপনার থাকে।

পেছনের দিকের বেলায় যুক্তি হলো বিমান যেহেতু সামনের দিকে এগুচ্ছে আঘাতের শেষ ধাক্কাটা আপনার উপর আসবে।

এটা স্বীকার করে নিতে হবে বিমানে আপনার জন্য কোন আসনই নিরাপদ না আপনি যদি পারিপার্শ্বিক অবস্থাটা বুঝে পদক্ষেপ না নেন। যদি বিমান লেজের দিকে আছড়ে পড়ে তবে সামনের এবং মাঝের চেয়ে পেছনের অংশই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই বিমান দুর্ঘটনা বিশেষজ্ঞরা বলেন বিমানের আসলে কোন আসনই সবচেয়ে নিরাপদ না।

সৌজন্যে- ফাঁপরবাজ