সাকিবকে ঘায়েল করতে পারলেন না উপস্থাপক

shakib-fmবাইরে থেকে গম্ভীর মনে হলেও, ফুরফুরে মেজাজে থাকলে সাকিব আল হাসানের মত মজার মানুষ দ্বিতীয়টি নেই। বাংলাদেশ দলের ড্রেসিংরুমে এটি প্রতিষ্ঠিত সত্য। বুধবার এই কথার প্রমাণ পেল সানরাইজার্স হায়দরবাদ এবং ভারতের রেডিও চ্যানেল রেড এফএম ৯৩.৫। রেড এফএমের সাক্ষাৎকারে খুনসুটিতে মেতে ওঠেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরবাদের জার্সি স্পন্সর ভারতীয় রেডিও চ্যানেল রেড এফএম ৯৩.৫। এই চ্যানেলের শ্রোতাদের আরো আকৃষ্ট করার লক্ষ্যে চলতি আইপিএলে হায়দরাবাদের খেলোয়াড়দের নিয়ে মজার সাক্ষাৎকারের আয়োজন করছে রেড এফএম। বুধবারেই অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে ছিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

অনুষ্ঠানটি সাক্ষাতকারমূলক হলেও পুরো অনুষ্ঠান জুড়েই অতিথির সাথে হাস্যরসে মেতে থাকেন উপস্থাপক। বুধবার খোশ মেজাজে থাকা সাকিবকে পেয়ে অনুষ্ঠানটি পায় পূর্ণতা। উপস্থাপকের একেকটা গুগলির জবাবে সাকিব খেলে দিচ্ছিলেন মনোমুগ্ধকর সব সুইপ আর স্কুপ।

শুরুতেই সাকিব আল হাসানের হাসি নিয়ে সূক্ষ্ণ খোঁচা দিয়ে স্বাগত জানান উপস্থাপক। সাকিবও তার ছোট্ট হাসি দিয়ে জানিয়ে দেন ধন্যবাদ। অনুষ্ঠানের শুরু থেকে শেষপর্যন্ত ভক্ত-সমর্থকদের বিভিন্ন উদ্ভট এবং মজার প্রশ্নের উত্তর দিতে হয় অতিথিদের। সাকিবের জন্য প্রথম প্রশ্ন ছিলো, ‘ফিল্ডিংয়ের যে ‘গালি’ পজিশন, সেই গালিটা (তিরষ্কারসূচক শব্দ) আসলে কোথায় যায়? কার বাড়িতে যায়?’

সাকিব চটপট উত্তর দেন, ‘একটু কঠিন প্রশ্ন! তবে গালি অন্য কারো বাড়িতে যাবে কেন? সোজা হয়তো গ্যালারিতে চলে যায়।’ সাকিবের উত্তরে কি আর দমে যান উপস্থাপক? পরের প্রশ্ন নিয়ে আটকানোর চেষ্টা করেন তাকে। উদ্ভট প্রশ্নে তিনি জিজ্ঞেস করেন, ‘খেলার সময় অনেকবারই পানি খেতে দেখা যায় আপনাদের। কিন্তু কখনো কাউকে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে যেতে দেখা যায় না। তাহলে এতো পানি যায় কোথায়?’

সাকিব এবার একটু ভেবে বলেন, ‘না প্রকৃতির ডাকা সাড়া দিতে যায় তো। তবে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তো এক-দেড় ঘণ্টা মাঠে থাকতে হয়। তাই সমস্যা হয় না। তবে ওয়ানডে এবং টেস্টে যাই তো আমরা।’

পরের প্রশ্নে উপস্থাপক জিজ্ঞেস করেন, ‘ব্যাটসম্যানদের আউট করতে বাউন্সার কেন করা হয়?’ নিজে স্পিনার হওয়ায় সাকিবের কাছে হয়তো প্রশ্নটা একটু কঠিনই মনে হল। খানিক ভেবে তিনি উত্তর দেন, ‘আপনি কখনো ক্লাবে গিয়ে যদি দেখেন আপনার আশেপাশে বাউন্সার (শক্তিশালী মানুষ) দিয়ে ভরা, তখন আপনি কিন্তু ভদ্র ব্যবহার করবেন। কোনো ঝামেলায় যাবেন না। তেমনিভাবে ব্যাটসম্যানদের শান্ত রাখতেই বাউন্সার ব্যবহার করা হয়।’

সাকিবের এই উপস্থিত বুদ্ধিতে অভিভূত হয়ে উপস্থাপক বাংলাতেই বলে ওঠেন, ‘তুমি বুদ্ধিজীবী দাদা, তুমি বুদ্ধিজীবী।’ সাথে সাথে সাকিবের সূক্ষ্ণ খোঁচা, ‘আপনি তো ভালো বাংলা বললেন। বুদ্ধিজীবী! কঠিন বাংলা।’ এমন করেই অনুষ্ঠানের শেষ প্রান্তে চলে যান তারা।

শেষ করার আগে সাকিবকে জিজ্ঞেস করা হয় তার পছন্দের হিন্দি গান কোনটি এবং বলিউডের অভিনেত্রীদের মধ্যে সাকিবের প্রিয় কে? একটু দ্বিধায় পড়ে যান সাকিব। ভেবে বলেন, ‘অনেক আছে, তবে অরিজিৎ সিংয়ের দিল সামহাল জারা গানটি বেশি পছন্দ এবং অভিনেত্রীর মধ্যে প্রিয় ক্যাটরিনা কাইফ’। এসময় উপস্থাপক মজা করে বলেন, ‘আমার যা পছন্দ, তা আপনারও পছন্দ। আমাদের জন্যও কিছু ছেড়ে দিন। এমনিতেও অনেক কিছু পেয়েছেন আপনি।’

Nand Kishore Bairagi with Shakib Al Hasan

Nand Kishore Bairagi got fan mail for Shakib Al HasanSunRisers Hyderabad Kisna #Sunrisers #bajaateraho #NandKishoreBairagi #IPL

Posted by Red FM on Wednesday, April 18, 2018

জাগো নিউজ এর সৌজন্যে