sentbe-top

জার্মানি-আর্জেন্টিনার পর ব্রাজিলেরও বিদায়, সেমিফাইনালে বেলজিয়াম

neymarফেভারিটের বিদায় মিছিলে এবার নাম লেখাল পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলও। আজ কাজানে বেলজিয়ামের বিপক্ষে ১-২ গোলে হেরে কোয়ার্টারে ফাইনাল থেকেই বিদায় নিল নেইমাররা। আর ১৯৮৬ বিশ্বকাপের পর প্রথমবারের মতো সেমিফাইনালে পা রাখল বেলজিয়াম।

এর আগে কাজানেই হেরে বাছাই পর্ব থেকে ছিটকে যায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি। শেষ ষোলোতে বাদ পড়ে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। বড় দলগুলোর জন্য ‘অপয়া’ কাজানে রেহাই পেল না ব্রাজিলও। অথচ আজকের দুর্দান্ত খেলেছে তারা। কিন্তু শেষ হাসি হেসেছে বেলজিয়াম।

ব্রাজিল ও বেলজিয়াম ম্যাচ শুরু থেকেই ছিল দারুণ উত্তেজনাময়। আক্রমণ, পাল্টা-আক্রমণ, গোলপোষ্টে দুর্দান্ত শট- সব মিলিয়ে খেলাটি ছিল দারুণ উপভোগ্য। এর মধ্যেও বেলজিয়ামের চেয়ে স্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে ছিল ব্রাজিল। কিন্তু ভাগ্য তাদের সহায় ছিল না। এছাড়া বিপক্ষ বেলজিয়ামের গোলরক্ষক থিবি কোর্তোয়ার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সও এদিন ব্রাজিলের জন্য ছিল বড় বাধা।

আজ ম্যাচের শুরুতেই দুর্ভাগ্য হয়ে দাঁড়ায় সাইড পোস্ট। ৮ মিনিটেই সাইড পোস্ট বাধা হয়ে না দাঁড়ালে এগিয়ে যেতে পারত ব্রাজিল। নেইমারের কর্নার কিকে গোলমুখ থেকে পা লাগিয়েছিলেন থিয়াগো সিলভা। কিন্তু তা সাইড পোস্টে লেগে ফিরে আসে। তিন মিনিট পরে উইলিয়ানের নেওয়া কর্নার থেকেও সুযোগ পেয়েছিলেন পাওলিনহো। কিন্তু তাঁর দুর্বল ভলি বেলজিয়াম ডিফেন্ডার আরামে বিপদমুক্ত করেছেন।

দিনটা যে ব্রাজিলের নয়, তা বোঝা গেল ১৩ মিনিটে আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়ে। হ্যাজার্ডের নেওয়া কর্নার ক্লিয়ার করতে গিয়ে বাহুতে লেগে বল জালে জড়িয়ে যায়। এগিয়ে গিয়েও আক্রমণের ধার কমাল না বেলজিয়াম। মূলত কাউন্টার অ্যাটাকেই সিলভা, মিরান্দাদের পরীক্ষা নিয়েছেন হ্যাজার্ড, লোকাকুরা। ৩১ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনার দ্বিতীয় গোলটি করে দলকে অনেকটা নিরাপদ অবস্থানে নিয়ে যান। লোকাকু বল নিয়ে দ্রুত গতিতে ওপরে ওঠে এসে ব্রইনাকে বাড়ালে ম্যানচেস্টার সিটির এই মিডফিল্ডার বুলেটগতির শটে জড়িয়ে দেন জালে।

দুই গোল হজমের পর ম্যাচে ফিরে আর চেষ্টা করে ব্রাজিল। ৭৬ মিনিটে বদলি রেনাতো আউগুস্তো ব্যবধানও কমায়। বাকি সময়ে বারবার মনে হচ্ছিল সমতায় ফিরতে যাচ্ছে তিতের শিষ্যরা। ৮৪ মিনিটে সবচেয়ে সহজ গোলটি মিস করেন কুতিনহো। বক্সের মধ্যে থেকে নেইমারের কাট ব্যাকে ফাঁকায় থাকা কুতিনহো বলটি পোস্টেই রাখতে পারলেন না। যোগ করা পাঁচ মিনিটেও এসেছিল সুবর্ণ সুযোগ। ডি-বক্স থেকে নেইমারের বাঁকানো শট দুর্দান্ত সেভে ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠিয়ে শেষবারের মতো বেলজিয়ামের রক্ষাকর্তা গোলরক্ষক কোর্তোয়া। আর ব্রাজিলিয়ানদের জন্য বাড়ি ফেরার রাস্তাটাও দেখিয়ে দিলেন চেলসির ২৬ বছর বয়সী গোলরক্ষক।

sentbe-top