sentbe-top

যে পড়াশোনা অস্ট্রেলিয়ার স্থায়ী ভিসা পেতে সাহায্য করে

study-in-australiaবসবাসের জন্য বিশ্বের অন্যতম একটি দেশ অস্ট্রেলিয়া। উচ্চশিক্ষার জন্যও দেশটি প্রতি বছর হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে আকর্ষণ করে। আর বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শিক্ষার্থীদের একটা বড় অংশ দেশটিতে স্থায়ী বসবাসের সুযোগ প্রত্যাশী। তবে অভিবাসন ও ভিসা সংক্রান্ত নানা জটিলতার দরুন দেশটিতে স্থায়ী বসবাসের ভিসা পাওয়া খুব সহজ কোনো প্রক্রিয়া নয়। আর অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন বিভাগ দক্ষ পেশাদারদের অগ্রাধিকার দেওয়ার লক্ষ্যেও কাজ করছে।

দক্ষ পেশা তালিকার সঙ্গে সম্পৃক্ত বিষয়ে পড়াশোনা করতে আসা শিক্ষার্থীরা স্থায়ী ভিসা পেতে অনেকখানি এগিয়ে থাকেন। এ ধরনের বিষয়ে স্নাতক পাস করার পর স্থায়ী ভিসার জন্য আবেদন করে সফল হয়েছেন অনেকে। তাঁদের অনেকের সঙ্গে কথা বলে এমন কয়েকটি পড়াশোনার বিষয়ের কথা জানা গেছে, যা অস্ট্রেলিয়ার স্থায়ী ভিসা পেতে সাহায্য করতে পারে।

প্রকৌশল: অস্ট্রেলিয়ার দক্ষ পেশা তালিকার দিকে নজর দিলে, প্রকৌশলসংক্রান্ত বেশ কতগুলো পেশার নাম দেখা যাবে। এ পেশায় দক্ষ লোকের অভাব রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়। প্রকৌশল বিষয়ে স্নাতক বা পরবর্তী পড়াশোনার অনেক চাহিদা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়।

আইসিটি: অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন বিভাগ প্রযুক্তি শিল্পে উন্নয়নের জন্য প্রতিভাবান উদ্ভাবকদের জন্য নতুন গ্লোবাল ট্যালেন্ট ভিসা স্কিম চালু করেছে। আর দেশটিতে টেকভিত্তিক চাকরির অনেক সুযোগ রয়েছে।

রেস্টুরেন্ট, হোটেল পরিচালনা ও রান্না: উন্নত দেশগুলোর মধ্যে অস্ট্রেলিয়াতেও প্রচুর ভ্রমণকারীর আগমন ঘটে প্রতিবছর। তাই দেশটিতে অসংখ্য ছোট বড় রেস্টুরেন্ট ও হোটেল গড়ে উঠছে। এর সঙ্গে চাহিদা সৃষ্টি হয়েছে দক্ষ রেস্টুরেন্ট, হোটেল পরিচালনাকারী ও রান্না বিষয়ক কর্মীর। আর তাই এ বিষয়ের পড়াশোনা ও অভিজ্ঞতা দেশটির স্থায়ী বসবাসের ভিসা পেতে অনেকখানি সাহায্য করবে।

অস্ট্রেলিয়ার সরকার জনস্বাস্থ্যের বিষয়ে খুবই সচেতন। অস্ট্রেলিয়ার স্বাস্থ্যসেবা ও পরিকাঠামো বিশ্বব্যাপী সর্বত্র শ্রেষ্ঠ বলে অভিহিত হয়। দেশটির সরকারি-বেসরকারি সকল হাসপাতালেই রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে সদা প্রস্তুত। আর এ জন্য দেশটিতে স্বাস্থ্যসেবা এবং সংশ্লিষ্ট সেবা পেশাদারদের বিপুল চাহিদা রয়েছে।

শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ: অস্ট্রেলিয়ায় পড়াশোনা শেষে যারা স্থায়ী বসবাসের ভিসা পেতে ইচ্ছুক তারা শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের কোর্স বেছে নিতে পারেন।

আইন: অস্ট্রেলিয়ার আইনি পেশা সারা বিশ্বের অনেক প্রতিভাবান শিক্ষার্থীকে আকর্ষণ করে। তাই সলিসিটার, ব্যারিস্টার ও অন্যান্য আইনি পেশাদারদের অস্ট্রেলিয়ার স্থায়ী ভিসা পাওয়ার উচ্চ সম্ভাবনা আছে।

নার্সিং: অস্ট্রেলিয়াতে স্বাস্থ্যসেবা ও সংশ্লিষ্ট সেবাগুলো অত্যন্ত মূল্যবান। বস্তুত, অস্ট্রেলিয়ার অবকাঠামো ও স্বাস্থ্যসেবা শিল্পকে বিশ্বের অন্যতম সেরা বলা হয়। নার্সিং কোর্স প্রদানের অস্ট্রেলিয়ান কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো স্বাস্থ্যসেবা শিল্পের জন্য নার্সিং কর্মীদের প্রস্তুত করতে উল্লেখযোগ্য। সুবিন্যস্ত কোর্স স্ট্রাকচার ও প্রশিক্ষক রয়েছে। নিবন্ধিত নার্সদের অত্যন্ত চাহিদা এখানে।

হিসাবরক্ষক: অস্ট্রেলিয়ার শিল্পগুলোর করদাতা অ্যাকাউন্ট, অ্যাকাউন্টিং ও ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট ইত্যাদির পেশাদারদের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। যদিও এখন এ বিষয়ে প্রচুর শিক্ষার্থী এখানে। ফলে, এ বিষয়ে স্থায়ী ভিসার কোটা থেকে প্রার্থী বেশি লক্ষণীয়।

এ কোর্সগুলো ছাড়াও সমাজবিজ্ঞান ও বাণিজ্য ইত্যাদি বিষয়ের পেশাদারদের চাহিদা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়। জেনে রাখা জরুরি, অস্ট্রেলিয়ার দক্ষ পেশার চাহিদা তালিকা সব সময় পরিবর্তন হয়। সেই সঙ্গে দক্ষতা প্রমাণের আবশ্যিক শর্তও।

কাউসার খান: অভিবাসন আইনজীবী, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া
ইমেইল: immiconsultants@gmail.com
সৌজন্যে: প্রথম আলো

sentbe-top