sentbe-top

শ্রীলঙ্কার কাছে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা পেল দক্ষিণ আফ্রিকা

srilanka-africa২৩ রানে প্রথম উইকেট পড়ার পর ক্রিজে এসেছিলেন, বলতে গেলে একাই দলকে টেনে নেয়ার চেষ্টা করেছেন থিউনিস ডি ব্রুইন। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের লড়াইটা শেষপর্যন্ত পরাজয়ের ব্যবধান কমানো ছাড়া কোনো কাজে আসেনি। আসবে কিভাবে? জয়ের লক্ষ্যটা যে ছিল পাহাড়সম, ৪৯০ রানের। কলম্বোতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টটি ১৯৯ রানে হেরে দুই ম্যাচের সিরিজে শ্রীলঙ্কার কাছে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা পেল দক্ষিণ আফ্রিকা।

প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার ৩৩৮ রানের জবাবে ১২৪-তেই অলআউট দক্ষিণ আফ্রিকা। ওই দূরত্বটাই পরে আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি প্রোটিয়ারা। দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেটে ২৭৫ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে দেয় শ্রীলঙ্কা। জবাবে চতুর্থ দিনের দ্বিতীয় সেশনে এসে সফরকারিরা অলআউট ২৯০ রানে।

লক্ষ্যটা অসম্ভবই ছিল। ৪৯০ রান তাড়া করতে জিততে হলে বিশ্বরেকর্ড গড়তে হতো দক্ষিণ আফ্রিকাকে। সেটা সম্ভব না হলেও লড়াই করেছে প্রোটিয়ারা। আলাদা করে বললে লড়েছেন থিউনিস ডি ব্রুইন। প্রোটিয়া এই ব্যাটসম্যান একটা প্রান্ত ধরে রেখে দলকে এগিয়ে নিয়েছেন বলতে গেলে একদম শেষ পর্যন্ত। অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি ফেরার পর আর হার মেনে নিতে সময় লাগেনি দক্ষিণ আফ্রিকার। ২৩২ বলে ১২ বাউন্ডারিতে ১০১ রান করেন ডি ব্রুইন। টেম্বা বাভুমা করেন ৬৩ রান।

মূলত রঙ্গনা হেরাথের ঘূর্ণির সামনেই সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি প্রোটিয়ারা। হেরাথ একাই নেন ৬ উইকেট। ২টি করে উইকেট নেন আকিলা ধনঞ্জয়া আর দিলরুয়ান পেরেরা।

sentbe-top