ঢাবির জিয়াউর রহমান হলের নাম পরিবর্তন করলো ছাত্রলীগ

zia-hallঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের নাম পরিবর্তন করে শুধু ‘মুক্তিযোদ্ধা হল’ করার প্রস্তাব দিয়েছে ছাত্রলীগ। এখন থেকে ‘মুক্তিযোদ্ধা হল’ নামে ডাকাবে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। সাধারণ শিক্ষার্থীদেরও এই নামে ডাকার আহ্বান জানানো হয়েছে। নাম ছাত্রলীগ পরিবর্তন করলেও এ বিষয়ে ঢাবি প্রশাসন কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি।

বুধবার সন্ধ্যায় হলে সাধারণ শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের নির্বাচনী সংলাপ এবং মতবিনিময় সভায় এই ঘোষণা দেয় ঢাবি ছাত্রলীগের নেতারা। এ সিদ্ধান্তের ব্যাপারে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাসুদ লিমন বলেন, শিক্ষার্থী সংলাপ ও নির্বাচনী কর্মী সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস এ প্রস্তাব করেন। আমি আজ থেকে দেড় বছর আগে প্রধানমন্ত্রীর সামনে দাঁড়িয়ে প্রথম বলেছিলাম, যে আমাদের হলের নামটি পরিবর্তন করা হোক। আজ সেটির বাস্তবায়ন করা হলো।

তবে হল প্রশাসনকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিষয়টি জানানো হবে কিনা-এ ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি বলে জানান আব্দুল্লাহ আল মাসুদ লিমন।

সাধারণ শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের নির্বাচনী সংলাপ এবং মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক হোসেইন সাদ্দাম এবং হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইউসুফ ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাসুদ লিমন। এতে হল শাখা ছাত্রলীগের শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

উইকিপিডিয়ার মতে, ১৯৮৮ সালে মরহুম রাষ্ট্রপতি মুক্তিযোদ্ধা শহীদ জিয়াউর রহমানের নামানুসারে হলের নামকরণ করা হয়। এ হলের আবাসিক ছাত্রের সংখ্যা ১২০৫ জন এবং অনাবাসিক ছাত্রের সংখ্যা ৩৭৫২ জন।