cosmetics-ad

কেনিয়ায় যাজকসহ ৬৫ খ্রিস্টানের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ, গির্জার স্থানে মসজিদ নির্মাণ

keneya-muslim

পূর্ব আফ্রিকার দেশ কেনিয়ার ‘গডস কল’ নামক গির্জার সাবেক যাজক ‘চার্লস ওকাওয়ানি’। সম্প্রতি তিনি ‘ওহিয়ে ইলাহি’ নামক গির্জায় প্রার্থনারত ৬৫ জন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীসহ নিজে পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

‘ওহিয়ে ইলাহি’ নামক গির্জার স্থানে বর্তমানে নির্মাণ করেছেন একটি মসজিদ। জানা যায় ইসলাম গ্রহণের পূর্বে ওই স্থানে এক সঙ্গে প্রার্থনা করতেন তারা। আর তাই ইসলাম গ্রহণের পরও যেন একই স্থানে ইবাদত-বন্দেগি করতে পারেন তাই নির্মাণ করেছেন মসজিদ।

ইসলাম গ্রহণের পর সাবেক যাজক চার্লস ওকাওয়ানি নতুন নাম ধারণ করেছেন ‘ঈসমাঈল ওকাওয়ানি’। কেনিয়ার কিসি শহরের প্রখ্যাত আলেম মুস্তাফা সাউকা’র কাছে নিজের হৃদয়ের বিশ্বাস ও অন্তরঙ্গ অনুভূতি ব্যক্ত করে কালেমা শাহাদাতাইন পাঠের মাধ্যমে ইসলাম গ্রহণ করেছেন।

তুরস্কের খাইরাত আল-বারাকাহ ফাউন্ডেশন‘ওহিয়ে এলাহি’ গির্জার স্থানে মসজিদ নির্মাণে সহায়তা করেছেন বলে জানা যায়। এই মসজিদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ইসলাম গ্রহণ করে ইসমাঈল ওকাওয়ানি তাঁর অনুভূতি ব্যক্ত করেন এভাবে- ‘বিশপ হিসাবে আমার দায়িত্ব পালনের সময় আমি ঈশ্বরের বাণী প্রচারের জন্য কেনিয়ার মালিঙ্গি, মুম্বাস ও নাইরোবি শহরসহ তানজানিয়া ভ্রমণ করেছি।

সে সময় আমি এসব এলাকায় বসবাসরত খ্রিস্টান ও মুসলমানদের আচরণ সম্পর্কে অধ্যয়নের সুযোগ পেয়েছিলাম। সব বিষয় দেখে ও বুঝে আমি এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছিলাম যে, ‘ইসলামই হচ্ছে সর্বোৎকৃষ্ট ধর্ম।’ আর এ জন্য আমি ইসলাম ধর্মের পতাকাতলে আশ্রয় নিয়েছি।

আমি আরও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি যে, ইসলাম সম্পর্কে অধিক তথ্য ও গবেষণা করতে পৃথিবীর যেকোনো স্থানে যদি সফর করতে হয়, তাহলে আমি সেই স্থানে সফর করে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করবো’

উল্লেখ্য, খ্রিস্টান সংখ্যাধিক দেশ কেনিয়ায় মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ ইসলাম ধর্মের অনুসারী।