দুই বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ জয়সুরিয়া

jayasuriyaশ্রীলঙ্কার প্রাক্তন অধিনায়ক সনাৎ জয়সুরিয়াকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিট (এসিইউ)। দুর্নীতির তদন্তের ক্ষেত্রে সহযোগিতা না করায় ও দুর্নীতির প্রমাণাদি ধ্বংস করায় বিশ্বকাপ জয়ী ও দ্বীপ রাষ্ট্রটির জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব জয়সুরিয়াকে এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। ২০২১ সাল পর্যন্ত তিনি কোনো প্রকার ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট কাজকর্মে অংশ নিতে পারবেন না।

গেল বছরের অক্টোবরে জয়সুরিয়াকে আইসিসির দুর্নীতি দমন নীতিমালা ভঙ্গ করার অভিযোগে সংস্থাটির দুর্নীতি দমন ইউনিট (এসিইউ) অভিযুক্ত করে। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের মধ্যে ছিল দুর্নীতি দমন ইউনিটকে তদন্তে সহযোগিতা করার ক্ষেত্রে অস্বীকৃতি জানানো, তদন্তে বাধা দেওয়া, তদন্তের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও প্রমাণাদি লুকিয়ে ফেলা, সেগুলো জালিয়াতি করার চেষ্টা ও ধ্বংস করা। এমনকী তদন্তের সময় তিনি দুর্নীতি দমন ইউনিটের কাছে তার মোবাইল ফোন দিতেও অস্বীকৃতি জানান। আরো বেশ কিছু বিষয়ে তার কাছে সহযোগিতা চাওয়া হলেও তিনি সেটা করেননি।

তার একদিন পরই আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিট তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। তখন জয়সুরিয়া জানিয়েছিলেন যে তিনি সব সময়ই স্বচ্ছতা ও সাধুতা মেনেই চলছেন। তিনি কোনো ধরণের দুর্নীতি, অন্যায় কাজ, ম্যাচ পাতানো কিংবা পিচ ফিক্সিংয়ের মতো কাজের সঙ্গে জড়িত নন।

প্রায় এক বছর শ্রীলঙ্কায় দুর্নীতি বিষয়ক তদন্ত শেষে জয়সুরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আনা হল। অবশ্য এসিইউ জানিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের পুরো সিস্টেমেই দুর্নীতি রয়েছে। দুর্নীতি তাদের মজ্জাগত বিষয়। এসিইউ এর মহাব্যবস্থাপক আলেক্স মার্শাল জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কায় তাদের এই সাড়াশি অভিযান ও তদন্ত মূলত দেশটির ক্রিকেটে মজ্জাগত দুর্নীতির চক্রকে ভেঙে দেওয়ার জন্যই পরিচালিত হয়েছে। জয়সুরিয়া তার বিরুদ্ধে আনীতি অভিযোগ ও শাস্তি মেনে নিয়েছেন।

তথ্যসূত্র: আইসিসি ও ক্রিকইনফো