ক্ষতিপূরণ পাবেন মালয়েশিয়ায় নিহতদের পরিবার

malaysia-accidentক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে মালয়েশিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পাঁচ বাংলাদেশির পরিবারকে। মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। শুক্রবার রাতে দেশে এসেছে ওই পাঁচজনের মরদেহ। কুয়ালালামপুর বাংলাদেশ দূতাবাস জানায়, লাশ হস্তান্তরকালে প্রত্যেক পরিবারকে সরকারের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিল থেকে দাফনের জন্য ৩৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়।

পরে ক্ষতিপূরণ বাবদ প্রত্যেক পরিবারকে তিন লাখ টাকা করে দেওয়া হবে। মালয়েশিয়ার যে প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন ওই প্রতিষ্ঠান প্রত্যেক পরিবারকে পাঁচ হাজার রিংগিত করে দেবে। পরবর্তীতে ক্ষতিপূরণ বাবদ ইনস্যুরেন্সের টাকাও পাবেন নিহতদের স্বজনরা। সম্পূর্ণ বিষয়টি হাইকমিশন তদারকি করছে বলে জানানো হয়।

গত ৭ এপ্রিল মালয়েশিয়ায় রোববার রাত ১১টায় বাস খাদে পড়ে ঘটনাস্থলেই বাংলাদেশিসহ নয়জন নিহত হন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাসচালকসহ মারা যান আরো দুজন।

নিহত পাঁচজনের মধ্যে দুজন চাঁদপুর, দুজন কুমিল্লা ও একজন নোয়াখালীর। তাঁরা হলেন—চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার দেবীপুরের সোহেল (২৪) ও ফরিদগঞ্জ থানার চরভাগলের আলামিন (২৫), কুমিল্লা জেলার লাকসাম থানার দুরলবপুর গ্রামের মহিন (৩৭) ও দাউদকান্দি থানার হাসানপুর কলেজপাড়ার ঢাকাগাঁও গ্রামের রাজীব মুন্সি (২৭) এবং নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার নোয়াখোলা এলাকার গোলাম মোস্তফা।