cosmetics-ad

ইসলামি বিশ্বের সাংস্কৃতিক রাজধানী কায়রো ও বোখারা

আফ্রিকা ও এশিয়ার দুটি শহরকে যৌথভাবে ইসলামি বিশ্বের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। মিসরের রাজধানী কায়রো এবং উজবেকিস্তানের বিখ্যাত প্রাচীন শহর বোখারা, শহর দুইটি ২০২০ সালের জন্য ইসলামি বিশ্বের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে।

চলতি বছর (২০১৯) ইসলামি বিশ্বের সাংস্কৃতিক শহর হিসেবে মনোনীত ছিল তিউনিশিয়া। আনাদুলো এজেন্সির তথ্য মতে, ইসলামিক এডুকেশন সাইন্স অ্যান্ড কালচারাল অরগানাইজেশন (ISESCO) ২০২০ সালের জন্য মিসরের কায়রো ও উজবেকিস্তানের বোখারা শহরকে ইসলামিক বিশ্বের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে নির্বাচিত করেছে।

ইসলামিক এডুকেশন সাইন্স অ্যান্ড কালচারাল অরগানাইজেশনের মহাপরিচালক সেলিম বিন মুহাম্মদ আল-মালিক তিউনিশিয়ায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতির ভাষণে এ শহর দুটিকে ইসলামিক বিশ্বের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দেন।

islamic-culture-capitalতিনি তার বক্তব্যে জানান, ‘এ কর্মসূচি লক্ষ্য হলো বিশ্বব্যাপী ইসলামি দেশগুলোর মধ্যে সাংস্কৃতিক বিকাশে কাজ করা। যে কারণে ২০১৯ সালে তিউনিশিয়াকে ইসলামিক বিশ্বের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছিল। কেননা ইসলামের ইতিহাস ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সঙ্গে তিউনিশিয়ার রয়েছে গভীর সম্পর্ক।

তিউনিশিয়া ইসলামিক বিশ্বের সাংস্কৃতি রাজধানী ২০১৯ এর সমাপনী অধিবেশনে দেশটির সাংস্কৃতিক মন্ত্রী মোহাম্মদ জয়নাল আবেদিনও ইসলামি বিশ্বে নিজেদের সাংস্কৃতি বিকাশের প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তুলে ধরেন।

ইসলামিক এডুকেশন সাইন্স অ্যান্ড কালচারাল অরগাইনেজশন-এর গ্রহণ করা এ উদ্যোগ বিশ্বব্যাপী ইসলামিক সংস্কৃতি বিকাশের এক অনন্য উদ্যোগ। এ উদ্যোগ চলমান থাকলে বিশ্বব্যাপী ইসলামিক সাংস্কৃতিক ও শিক্ষার উন্নয়ন ও সামাজিক মূল্যবোধ বৃদ্ধি পাবে।