Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

আলোচনায় সৌদি অভিনেত্রী বাহরভি

অভিনেত্রী মারিয়া বাহরভি।

সৌদি আরব থেকে প্রথম কোনো সিনেমা চলতি বছর ৭৬তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের অফিশিয়াল মনোনয়ন পেয়েছে। আঁ সার্ত্রে রিগা শাখায় মনোনয়ন পাওয়া সিনেমার নাম ‘নোরা’। যেখানে অভিনয় করেছেন সৌদি অভিনেত্রী মারিয়া বাহরভি।

এটি পরিচালনা করেছেন তৌসিফ আলজায়েদি। সিনেমাতে উঠে এসেছে নব্বইয়ের দশকের রক্ষণশীল এক সমাজের গল্প। একটি মেয়েকে ঘিরেই সিনেমার গল্প আবর্তিত হয়। প্রথম সিনেমা দিয়েই সৌদি চলচ্চিত্র ইতিহাসের অংশ হয়ে রীতিমতো আলোচনায় চলে আসেন তিনি।

chardike-ad
নোরা সিনেমার পোস্টার।

মারিয়া কখনো ভাবেননি এত অল্প বয়সেই তিনি এতোটা খ্যাতি অর্জন করবেন। তবে তিনি সৌদি মেয়েদের জন্য অনুপ্রেরণা হতে পারছেন বলে অত্যন্ত আনন্দিত।

তিনি মনে করেন পরিবারের সমর্থন বাদে কখনোই তাঁর আজকের অবস্থানে আসা হতো না। এক সাক্ষাৎকারে মারিয়া আরব নিউজকে বলেন, “শৈশব থেকেই আমি যতটা মনে করতে পারি, আমার মা আমার কোনো চাওয়া থেকে ফেরাননি। যা আমার ভালো লাগত, যেগুলোতে উৎসাহী হতাম, সেগুলো থেকে আমাকে দূরে রাখতেন না। পরিবার সব সময় আমাকে সহযোগিতা করেছে। আমাকে কোনো প্রতিবন্ধকতায় রাখেনি। তাদের ছাড়া আমি অভিনেত্রী হতে পারতাম না।“

মারিয়া বাহরাভির বেড়ে ওঠা জেদ্দায়। বিভিন্ন দেশের সিনেমা ও সিরিজের ভক্ত এই নায়িকার একসময় ইচ্ছা জাগে, অভিনয় করবেন। মাত্র ১৫ বছর বয়সেই অভিনয় নিয়ে পড়াশোনা শুরু করেন।

এত বাধা উতরে এখানে পৌঁছানোটাকে অনেকটা স্বপ্নের মত মনে হয় মারিয়ার কাছে। তবে, তিনি থেমে যেতে চান না। এগিয়ে যেতে চান একই উদ্যমে।

মারিয়া বলেন,”আমি আমার স্বপ্নের চেয়েও অনেক বড় জায়গায় পৌঁছেছি। এখন আমার কাছে অনেক বড় সুযোগ রয়েছে। সেদিকেই আমি নিজেকে নিয়ে যেতে চাই।”