cosmetics-ad

এবার হজের রেজিস্ট্রেশন হবে অনলাইনে

Hajj

ওমরার মতো এবার হজযাত্রীদের ‘অনলাইন ইলেকট্রনিক হজ ভিসা’ প্রদান করবে সৌদি সরকার। চলতি বছর সরকারি বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় গমনেচ্ছুক হাজিদের ইলেকট্রনিক ভিসা পেতে সকল হজ এজেন্সীকে আবশ্যিকভাবে প্রত্যেক হাজির অনুকূলে মক্কা ও মদিনায় বাড়ি ভাড়া, মাশায়ারে আল মোকাদ্দাসার ক্যাটারিং সার্ভিস ও যাতায়াত সংক্রান্ত চুক্তি সম্পাদন করে ই-হজ পদ্ধতিতে আগে প্রয়োজনীয় তথ্যউপাত্ত এন্ট্রি দিতে হবে।

সৌদি সরকার প্রত্যেক হাজির পাকেজ ভিত্তিক সেবা প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তবেই ই-হজ পদ্ধতিতে রেজিষ্ট্রেশন করবে। তারপর বর্তমানে প্রচলিত ওমরা ভিসার মতো একই পদ্ধতিতে ইলেকট্রনিক হজ ভিসা দেয়া হবে। অন্যথায় ভিসা ইস্যু করা হবে না। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ব্যাংক একাউন্ট খোলা, মোনাজ্জেম কার্ড সংগ্রহ, বাড়িভাড়া ও ক্যাটারিংসহ প্রয়োজনীয় কার্যক্রম সম্পন্ন করতে বার বার তাগিদ দেয়ার পরও ১৭০টি এজেন্সীর মোনাজ্জেম এখনও সৌদি আরব যায় নি।

সৌদি আরবের জেদ্দায় বাংলাদেশ হজ অফিসের কাউন্সিলর (হজ) মো. আসাদুজ্জামান ১৬ জুন এক চিঠিতে বিভিন্ন এজেন্সীর মোনাজ্জেমকে দ্রুততম সময়ে সৌদি আরব যাওয়ার তাগাদা দিয়েছেন। একইদিন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সহকারি সচিব বেগম হাসিনা শিরীন এক চিঠিতে ১৭০টি হজ এজেন্সীর মোনাজ্জেমকে দ্রুত সৌদি যাওয়ার তাগিদ দিয়েছেন।

ডা. আবু সালেহ মো: মোস্তফা কামাল, উপসচিব ও পরিচালক (হজ) জানান, দেশে হজ এজেন্সীর কাজ শেষ। এখন তারা সৌদি আরবের পথে রয়েছেন। ভিসা প্রাপ্তিতে তেমন সমস্যা হবে না বলে তিনি ধারনা করছেন বলে জানান।

উল্লেখ্য, এবার বাংলাদেশ থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১০ হাজার ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৯১,৭৫৮ জন হজ করার কথা রয়েছে। সাত শতাধিক বেসরকারি হজ এজেন্সীর মাধ্যম প্রায় ৯২ হাজার হাজি যাবে।