sentbe-top

বেওয়ারিশ বিমান বিক্রি হবে নিলামে!

malaysia-airportমালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে বেশ কিছুদিন ধরে অব্যবহৃত অবস্থায় ৩টি বোয়িং ৭৪৭ বিমান পড়ে রয়েছে। এই বিমানগুলোর মালিক বা কর্তৃপক্ষের বিষয়ে কিছুই জানে না কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরের কর্মকর্তারা। অবশেষে সেগুলোকে বেওয়ারিশ বিমান উল্লেখ করে মালিকের সন্ধানে স্থানীয় সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বোয়িং ৭৪৭ বিমান ৩টির মালিক পক্ষকে বিজ্ঞাপন প্রকাশের পরবর্তী ১৪ দিনের যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, বেওয়ারিশ বিমানগুলোর মালিকপক্ষ যদি পরবর্তী ১৪ দিনের মধ্যে এর মালিকানা দাবি না করেন- তবে বিমানগুলো বিক্রি করা হবে অথবা সেগুলো ধ্বংস করার বিষয়ে অধিকার প্রয়োগ করতে আমরা বাধ্য হব।

নোটিশে আরও বলা হয়েছে, বিমানগুলোর ল্যান্ডিং এবং সেখানে পার্কিং বাবদ যা খরচ হচ্ছে তাও মালিককে মিটিয়ে দিতে হবে।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, এই বিমানগুলোর মালিক হিসেবে তাদের কাছে শেষ যে তথ্য জানা ছিল- সে অনুযায়ী তারা তাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা করেছেন।

মালয়েশিয়া বিমানবন্দরের জেনারেল ম্যানেজার জায়নুল মোহম্মদ ইশার বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, আমরা বিমানগুলোর মালিকপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছি। কেন তারা আমাদেরকে কোনো সাড়া দিচ্ছে না- তা এখনও নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। এর পেছনে হয়ত অনেক কারণ থাকতে পারে। হয়ত বিমান পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ তাদের কাছে নেই।

তিনি বলেন, বিভিন্ন বিমানবন্দরে গত ১০ বছরে বেশ কয়েকটি ছোট বিমান পরিত্যক্ত অবস্থায় রেখে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

তিনি আরও জানান, ১৯৯০ এর দশকে বিমানবন্দরে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা একটি বিমান কিনে সেটিকে একটি রেস্তোরাঁ বানানো হয়েছে।

কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরের কর্মকর্তারা বলেন, আগামী ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে বোয়িং ৭৪৭ বিমান ৩টির মালিকপক্ষ যদি বকেয়া বিল পরিশোধ না করে তবে সেগুলো নিলামে বিক্রি করা হবে। এর থেকে প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে ওই বিমানগুলোর বকেয়া অর্থ পরিশোধ করা হবে। যদি নিলামে বিক্রি করা সম্ভব না হয়, সেক্ষেত্রে বিমানগুলো ভেঙ্গে এগুলোর লোহা বিক্রি করা হবে।

sentbe-top