cosmetics-ad

অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশি কালচারাল নাইট

culture-prograam-in-australia

অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেডে বাংলাদেশ ক্লাব অস্ট্রেলিয়ার (বিসিএ) উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশি কালচারাল নাইট ২০১৭। অনুষ্ঠানটিতে ছিল সমৃদ্ধ বাংলাদেশি কৃষ্টি-কালচারের অনবদ্য উপস্থাপনা। সম্প্রতি স্কট থিয়েটারে এই অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বিসিএর প্রেসিডেন্ট জিয়াউল আলম খান জুয়েল। উপস্থিত ছিলেন রাজ্য (স্টেট) সংসদের এনাবেল ডাইগেন্স এমপি, ফেডারেল পার্লামেন্টের স্টিভ জর্গানাস এমপি, সিটি অব ওয়েস্ট টরেন্সের মেয়র জন ট্রেইনারসহ আরও অনেকে।

আয়োজনের শুরুতেই ছিল শিশু-কিশোরদের দলীয় সংঙ্গীত ‘আমরা করব জয়’। এর সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়েছিলেন অডিটোরিয়াম ভর্তি শত শত দর্শক। আমাদের শিশু-কিশোরেরা যখন মুষ্টিবদ্ধ হাত উত্তোলন করে গাইছিল আমাদের নেই কোনো ভয়, সত্যিই নিজেকে খুব নির্ভয় মনে হচ্ছিল।

এরপরে ছিল ফারহানা আজাদের নির্দেশনায় বাচ্চাদের ফান মিউজিক্যাল শো ‘আলাদিন ও তার জাদুর প্রদীপ’। শিশু-কিশোরদের সাবলীল অভিনয় উপস্থিত দর্শকদের মন কেড়েছে।

ফায়জা সালাউদ্দিন মিলির কোরিওগ্রাফিতে আমাদের ঐতিহ্যবাহী বেনারসিকে উপস্থিত দেশি বিদেশি দর্শকদের কাছে শৈল্পিকভাবে উপস্থাপনের জন্য বাংলাদেশি কালচারাল নাইটে বেনারসি কাতান শিরোনামে ছিল ফ্যাশন শো। প্রবাসী বাংলাদেশি তরুণ-তরুণীরা ছাড়াও ৭ জন অস্ট্রেলীয় তরুণী বেনারসির সাজে সেজে মঞ্চে হেঁটেছেন।

বাংলাদেশি কালচারাল নাইটের সর্বশেষ আয়োজন ছিল বাংলা ছায়াছবির গানে রম্য উপস্থাপনা ছায়াছন্দ। আসিফ কামাল ও অরিত্রি সরকারের কোরিওগ্রাফি ও নির্দেশনায় ছিল দম ফাটানো সব পরিবেশনা।

এ ছাড়া কালচারাল নাইটে ছিল হরেক রকম বাংলাদেশি মুখরোচক খাবারের পসরা নিয়ে একাধিক খাবারের স্টল। আগত দেশি-বিদেশি দর্শকেরা লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে খাবারের স্টল থেকে কাচ্চি বিরিয়ানি, ফুচকা, চটপটি, নানান ধরনের পিঠা এবং বিভিন্ন ধরনের বাংলাদেশি ট্র্যাডিশনাল মিষ্টি কিনেছেন এবং বাংলাদেশি খাবারের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন।

এই আয়োজনের স্পনসর হিসেবে ছিল মাল্টিকালচারাল সাউথ অস্ট্রেলিয়া, সিটি অব অ্যাডিলেড, সিটি অব ওয়েস্ট টরেন্স, মানি মার্চেন্ট ফাইনান্স সার্ভিস ও বিডি টিআরএস।