cosmetics-ad

প্রেসিডেন্ট মুনকে উত্তর কোরিয়া সফরের আমন্ত্রণ কিমের

moon-jong

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনকে পিয়ংইয়ং সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। যদি দক্ষিণের প্রেসিডেন্ট উত্তরে সফরে যান তাহলে সেটি হবে এক দশকের বেশি সময়ের মধ্যে দুই কোরিয়ার দুই রাষ্ট্রনেতার প্রথম কোনো বৈঠক।

দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচ্যাং অলিম্পিকে যোগ দিয়ে এ আমন্ত্রণ জানান উত্তরের শীর্ষ নেতা কিম জং উনের ছোট বোন কিম ইয়ো জং। দেশটির পলিটব্যুরোর সদস্য ও প্রভাবশালী এ নেতা তার বড় ভাইয়ের হয়ে মুন জে ইনকে আমন্ত্রণ পৌঁছে দেন। খবর বিবিসির।

এ প্রস্তাবে মুন জে ইন দুই কোরিয়াকেই তা বাস্তবায়নে উদ্যোগী হতে বললেন এবং পরমানু ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসারও আহ্বান জানান। শীতকালীন অলিম্পিক শুরু হওয়ার আগে সিউলে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে এক বৈঠকে হস্তলিখিত এ আমন্ত্রণপত্র মুনের হাতে তুলে দেন কিম ইয়ো জং।

moon-jon১৯৫০ সালে কোরীয় যুদ্ধের পর এ প্রথম উত্তর কোরিয়ার প্রতীকী রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে কিমের বোনসহ এক প্রতিনিধি দল নিয়ে দক্ষিণে সফরে গেছেন কিম ইয়ং ন্যাম। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে তারা তিন ঘণ্টাব্যাপী এক বৈঠক করেছেন। সেখানে উত্তর-দক্ষিণের প্রতিনিধিরা দুই কোরিয়ার ঐহিত্যবাহী বাধাকপির আচার ও সজু চালের পানীয় পান করেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের এক মুখপাত্র বলেছেন, বৈঠকে উত্তর কোরিয়া সফরে মুনকে আমন্ত্রণ জানান কিমের বোন।

মার্কিন প্রভাবশালী দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের টোকিও ব্যুরো প্রধান এক টুইটে বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার নেতার বোন কিম ইয়ো-জং প্রাসাদে লেখা এক নোটে আশা প্রকাশ করে বলেছেন, অদূর ভবিষ্যতে পুনরেকত্রীকরণে ও সমৃদ্ধির জন্য কোরীয়দের হৃদয়ে আরো ঘনিষ্ঠ হবে পিয়ংইয়ং এবং সিউল।

সূত্র : বিবিসি।