cosmetics-ad

দক্ষিণ কোরিয়ায় ফুটবলের জাগরণ যেভাবে

দেখতে দেখতে চলে এসেছে বিশ্বকাপ ফুটবলের পরবর্তী আসর। এবার বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে জমকালো টুর্নামেন্টের ২১তম আসরটি বসবে রাশিয়ায়। ১৪ জুন মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় ‘এ’ গ্রুপের খেলায় স্বাগতিক রাশিয়া ও সৌদি আরবের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে মাঠে গড়াবে এবারকার আসর। বিশ্বকাপ শুরুর আগে আসুন পরিচিত হওয়া যাক টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া দেশগুলোর ফুটবল সংস্কৃতি ও ইতিহাস সম্পর্কে। আজ থাকছে পূর্ব এশিয়ার দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার ফুটবল সম্পর্কে।

কোরিয় উপদ্বীপে আধুনিক ফুটবলের যাত্রা শুরু হয় ব্রিটিশদের হাত ধরে। তার আগে প্রাচীন কোরিয়ান সাম্রাজ্যে ‘চুক-গুক’ নামে এক ধরনের খেলার প্রচলন ছিল। যেটি অনেকটাই ছিল ফুটবলের মতো। উনিশ শতকের শেষ দিকে, ১৮৮২ সালে ব্রিটিশ নাবিকরা কোরিয়ায় ফুটবল খেলা শুরু করে।

তবে দেশটিতে আনুষ্ঠানিভাবে ফুটবল খেলা ও ফুটবল শারীরিক শিক্ষার আওতায় আসে ১৯০৪ সালে। ন্যাশনাল সিউল ল্যাঙ্গুয়েজ স্কুলে ফুটবল খেলা চালু হয় এ সময়। ১৯০৫ সালে প্রথম আনুষ্ঠানিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয় দেশটিতে। সিউলে কোরিয়া স্পোর্টস ক্লাব ও কোরিয়া ওয়াইএমসিএ’র মধ্যে ওই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। এরও ৩ বছর আগে, ১৯০২ সালে সিউলের পাইচাই একাডেমি একটি ফুটবল দল গঠন করে। এটা দেশটিতে ফুটবল বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিল।

১৯০১ সালে দিকে বেশ কয়েকটি ফুটবল ক্লাব প্রতিষ্ঠিত হয়। পাশাপাশি স্কুলগুলোতেও ফুটবল দল গঠিত হয়। এর মধ্যে বিখ্যাত কিছু ফুটবল ক্লাব হচ্ছে বুদ্ধিস্ট ইয়ুথ ক্লাব, হেলথ ক্লাব ও জসেন ফুটবল ক্লাব। কোরিয়ার প্রথম ফুটবল টুর্নামেন্ট ‘অল জসেন ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ’ চালু হয় ১৯২১ সালে। তার এক বছর আগে, ১৯২০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় জসেন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। জসেন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের হাত ধরে দেশটিতে নতুন মাত্রা পায় খেলাটি। ‘অল জসেন ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ ১৯৩১ সাল পর্যন্ত চালু ছিল।

১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় কোরিয়া ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। ওই বছরই দেশটি ফিফায় যোগ দেয়। দক্ষিণ কোরিয়া জাতীয় ফুটবল দলের প্রথম আন্তর্জাতিক অভিষেক হয় একই বছর লন্ডনের অলিম্পিকে। ৬ জুলাই অনুষ্ঠিত প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে হংকংকে ৫-১ গোলে হারায় তারা।

এ নিয়ে দশমবারের মতো বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া। ১৯৫৪ সালে সুইজারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে প্রথম অংশ নেয় দলটি। ইন্দোনেশিয়ার পর দ্বিতীয় এশিয়ান দল হিসেবে বিশ্বকাপে অংশ নেয় তারা। তবে গ্রুপ পর্বে হাঙ্গেরি ও তুরস্কের কাছে হেরে বিদায় নেয় দলটি।

প্রণব আচার্য্য, পরিবর্তন।