সিরিয়ার শরণার্থী শিবিরে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

yarmoukমানবাধিকার সংস্থা অ্যাকশন গ্রুপ ফর প্যালেস্টিনিয়ানস অব সিরিয়া জানিয়েছে, পুরো সিরিয়ায় চার লাখেরও বেশি ফিলিস্তিন শরণার্থী রয়েছেন। সম্প্রতি দামেস্কর নিকটবর্তী ইয়ারমুকের ওপরে সিরিয়ার সামরিক বাহিনীর হামলায় কয়েক ডজন শরণার্থী নিহত হয়েছেন। ব্যারেল বোমা, ক্ষেপণাস্ত্র এবং শেলিং হামলায় শরণার্থী শিবিরের একটি বড় অংশ ধ্বংস হয়ে গেছে।

ইয়ারমুকে এখনো তিন হাজারেরও বেশি শরণার্থী বাস করছেন। হামলার পর অনেকেই বিধ্বস্ত ভবনগুলোর নিচে আটকা পড়েছেন। ১৯ এপ্রিল থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত ওই শিবিরে ৩১ জন শরণার্থীর মৃত্যু হয়েছে। এই শরণার্থী শিবিরে থাকা আইএস এবং অন্যান্য জঙ্গি সংগঠনের যোদ্ধাদের নির্মূলের উদ্দেশ্যে হামলা চালায় সিরিয়া সরকার।

বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের একটি সংস্থা, ইউএন এজেন্সি ফর প্যালেস্টিনিয়ান রিফিউজিস (ইউএনআরডব্লিউএ) জানায়, ওই এলাকায় সহিংসতা বেড়ে গেছে এবং ঝুঁকিতে আছেন শরণার্থীরা।

এক বিবৃতিতে ইয়ারমুক থেকে শরণার্থীদের নিরাপদে বের হয়ে যাওয়ার সুযোগ দিতে আহ্বান জানিয়েছে ইউএনআরডব্লিউএ। তারা আরও জানিয়েছে, ওই এলাকায় বর্তমানে কোনো হাসপাতাল নেই, পানি এবং বিদ্যুৎ সরবরাহ নেই বললেই চলে। একদিকে সরকারি বাহিনী, অন্যদিকে বিদ্রোহী বাহিনীর মাঝে আটকা পড়ে আছেন তারা।

সৌজন্যে- প্রিয় নিউজ