দক্ষিণ কোরিয়ায় আটক বাংলাদেশি তিন নাবিক মুক্ত

shipদক্ষিণ কোরিয়ার জলসীমা থেকে আটক উত্তর কোরীয় একটি জাহাজে কর্মরত তিন বাংলাদেশি নাবিককে মুক্তি দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সিউলে বাংলাদেশি দূতাবাসের কাছে তাদের হস্তান্তর করা হয়। বুধবার দুপুরে বিমানযোগে তাদের দেশে পাঠানো হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ১৯ মার্চ উত্তর কোরিয়া হতে কয়লা বহনকারী ‘Talent Ace’ নামের ভুয়া আইএমও নম্বরধারী (IMO No:8793873) একটি জাহাজ দক্ষিণ কোরিয়ার Gunsan বন্দরে পণ্য খালাস করতে গেলে দক্ষিণ কোরিয়া কর্তৃপক্ষ নাবিকসহ জাহাজটিকে আটক করে। জাহাজে মিয়ানমারের সাতজন, চীনের ক্যাপ্টেনসহ ছয়জন এবং বাংলাদেশের তিনজন নাবিক চাকুরীরত ছিল। বাংলাদেশের নাবিকদের মধ্যে জুনিয়র অফিসার ইসমাঈল শেখ, সেকেন্ড অফিসার তীর্থ চক্রবর্তী এবং চতুর্থ ইঞ্জিনিয়ার আরিফুজ্জামান জাহাজটিতে কর্মরত ছিলেন।

পরবর্তীতে দক্ষিণ কোরিয়া কর্তৃপক্ষ সিউলস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসকে এ বিষয়ে অবহিত করলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দিকনির্দেশনায় সিউলস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস আটক বাংলাদেশি নাবিকদের উদ্ধার ও বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তণ বিষয়ে তাৎক্ষণিক দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে। প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে গত ৮ মে দক্ষিণ কোরিয়া কর্তৃপক্ষ ওই তিন নাবিককে বাংলাদেশ দূতাবাসের নিকট হস্তান্তর করে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সার্বিক দিকনির্দেশনায় বংলাদেশ দূতাবাস ওই তিন নাবিককে থাই এয়ারওয়েজ বিমানযোগে বাংলাদেশে পাঠিয়েছে। তাদের আজ দুপুর ১২.১০ মিনিটে বাংলাদেশে পৌঁছার কথা।