sentbe-top

সর্বনিম্ন রানের লজ্জার রেকর্ড টাইগারদের

cricketঅ্যান্টিগার স্যার ভিভ রিচার্ডস স্টেডিয়ামে নিজেদের টেস্ট ইতিহাসের সর্বনিম্ন রানের লজ্জার রেকর্ড গড়ে বসলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। কেমার রোচের বোলিং তোপে এক পর্যায়ে টেস্ট ইতিহাসের সর্বনিম্ন রানের লজ্জায় পড়ার শঙ্কা জাগিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহীমরা।

তবে লিটন দাশের ব্যাটে ভর করে সেই লজ্জা এড়ানো গেলেও, নিজেদের ইতিহাসের সর্বনিম্ন রানের লজ্জা এড়াতে পারেনি বাংলাদেশ। ২০০৭ সালের ৩ জুলাই তারিখে কলম্বোতে শ্রীলংকার বিপক্ষে মাত্র ৬২ রানে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। সেই ঘটনার ঠিক ১১ বছর ১ দিন পর এই রেকর্ড নতুন করে লিখলো বাংলাদেশ।

কেমার রোচ, মিগুয়েল কামিনসের তোপে মাত্র ৪৩ রানেই অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ দল। এক লিটন দাশের ২৫ রান ব্যতীত আর কেউই পারেননি দুই অঙ্ক ছুঁতে। ৫ ওভারে মাত্র ৮ রান খরচায় ৫ উইকেট নেন রোচ। কামিনসের শিকার ৩ উইকেট, অন্য ২ উইকেট নেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।

এছাড়া প্রায় দেড় শতকের টেস্ট ইতিহাসে এটি ৬ষ্ঠ সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ। ১৯৫৫ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ২৬ রানে অলআউট হয়ে সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড নিজেদের করে রেখেছে নিউজিল্যান্ড। ১৮৯৬ ও ১৯২৪ সালে ৩০ রানেই দুইবার অলআউট হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

১৮৯৯ সালে ৩৫ রানে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকানরাই। ১৯৩২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ১৯০২ সালে অস্ট্রেলিয়ার ৩৬ রানে অলআউট হওয়ার রেকর্ড রয়েছে। ৪২ রানে অলআউট হওয়ার ইতিহাস রয়েছে নিউজিল্যান্ড (১৯৪৬), ভারত (১৯৭৪) ও অস্ট্রেলিয়ার (১৮৮৮)।

এরপর ৪৩ রানে অলআউট করে রানের সংখ্যায় ষষ্ঠ সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহের লজ্জায় পড়লো বাংলাদেশ। ১৮৮৯ সালে ঠিক ৪৩ রানেই অলআউট হওয়ার রেকর্ড রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার।

বাংলাদেশের টেস্ট ইতিহাসের সর্বনিম্ন ইনিংসগুলো:
৪৩/১০ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ২০১৮
৬২/১০ বনাম শ্রীলংকা, ২০০৭
৮৬/১০ বনাম শ্রীলংকা, ২০০৫
৮৭/১০ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ২০০২
৮৯/১০ বনাম শ্রীলংকা ২০০৭

sentbe-top