জনপ্রিয় খল-অভিনেত্রী রানী সরকার আর নেই

rani-sahrkarষাট ও সত্তর দশকের জনপ্রিয় খল-অভিনেত্রী রানী সরকার আর নেই। শনিবার (৭ জুলাই) ভোর ৪ টার দিকে রাজধানী ধানমন্ডির ইডেন মাল্টিকেয়ার হাসপাতালে বার্ধক্যজনিত কারণে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। শিল্পী ঐক্যজোটের সাধারণ সম্পাদক ও নাট্যনির্মাতা জি এম সৈকত রানী সরকারের মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বার্ধক্য ছাড়াও পিত্তথলির পাথর, বাতজ্বর, জটিল কোলেলিথিয়েসিস রোগসহ নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন ষাট ও সত্তর দশকের বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় এই খল-অভিনেত্রী। তিনি মোহাম্মদপুরের নবোদয় হাউজিং মোড়ের ৬ নম্বর বাসায় মৃত ভাইয়ের দুটি এতিম মেয়েকে নিয়ে অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছিলেন।

রানী সরকার পঞ্চাশের দশকের শেষ ভাগে প্রথমে মঞ্চ, বেতার ও পরে টিভি এবং চলচ্চিত্রের অভিনয়ে যুক্ত হন। প্রায় চার শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

sentbe BT

রানী সরকার সাতক্ষীরার সোনাতলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন ১৯৫৮ সালে ‘দূর হ্যায় সুখ কা গাঁও’ ছবিতে। ১৯৬২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘চান্দা’ ছবিতে শবনমের মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করে রানী সরকার আলোচনায় আসেন।

তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে রয়েছে তালাশ, বন্ধন, সঙ্গম, ইম ধরতি পার, আজান, কাঁচের দেয়াল, কাঁচ কাটা হীরে, বেহুলা, আনোয়ারা, ছদ্ধবেশী, ভাওয়াল সন্ন্যাসী, তিতাস একটি নদীর নাম, চন্দ্রনাথ, শুভদা, দেবদাস প্রভৃতি। রানী সরকার অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি হচ্ছে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘থার্ড পারসন সিংগুলার নাম্বার’।

এদিকে বিশিষ্ট চলচ্চিত্র অভিনেত্রী রানী সরকারের মৃত্যুতে শিল্পী ঐক্যজোটের পক্ষ থেকে সংঘটনটির সভাপতি জনপ্রিয় অভিনেতা ডি.এ তায়েব ও সাধারণ সম্পাদক জি.এম সৈকত গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।