নিজেদের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জয় পেল ভারত

indiaচলতি বছরের জুনে আফগানিস্তানের ইতিহাসের প্রথম টেস্টে নিজেদের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয় পেয়েছিল ভারত। তিন মাসের মধ্যেই সে রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়লো বিরাট কোহলির দল।

এবার কোনো নবাগত দল নয়, বরং ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম কুলীন সদস্য ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ইনিংস ও ২৭২ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে এক নম্বর দলটি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে তাদের জয়টি ছিল ইনিংস ও ২৬২ রানের ব্যবধানে।

প্রথম ইনিংসে ভারতের করা ৬৪৯ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিনের শেষ বিকেলেই বিপর্যয়ে পড়েছিল সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৬ উইকেটে ৯৪ রান নিয়ে দিন শেষ করেছিল তারা। ফলোঅন এড়াতেই প্রয়োজন ছিল আরও ৩৫৬ রান। তা তো করেতে পারেইনি, উল্টো ফলো অনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসেও ধারাবাহিক রেখেছে ব্যাটিং ব্যর্থতা। যার ফলে ম্যাচ শেষে জুটেছে ইনিংস ও ২৭২ রানের ব্যবধানের বিশাল পরাজয়।

তৃতীয় দিন সকালে ব্যাট করতে নেমে যা লড়াই করেছেন শুধু কেমো পল এবং রস্টন চেজ। ইনিংসের একমাত্র ফিফটিতে চেজ করেন ৫৩ রান, ফিফটি থেকে তিন রান দূরে থামেন পল। ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলআউট হয় মাত্র ১৮১ রানে। তখনো তারা পিছিয়ে ৪৬৭ রানে। সঙ্গত কারণেই ফলোঅন করান ভারতীয় অধিনায়ক কোহলি।

ফলোঅনে পড়ে ব্যাট করতে নেমে আবারও ব্যর্থতার পরিচয় দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানরা। ব্যতিক্রম ছিলেন কেবল কিরন পাওয়েল। সাহসী ব্যাটিংয়ে মাত্র ৯৩ বলে ৮৩ রানের ইনিংস এ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। কিন্তু বাকিরা তাকে ন্যুনতম সঙ্গও দিতে পারেনি। পাওয়েল ছাড়া আরও ছয় ব্যাটসম্যান দুই অঙ্ক ছুঁতে পারলেও কেউ বড় করতে পারেননি নিজেদের ইনিংস।

বলা চলে বড় করতে দেয়নি ভারতীয় স্পিনাররা। প্রথম ইনিংসে তিন স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবিন্দ্র জাদেজা ও কুলদ্বীপ যাদভ মিলে নিয়েছিলেন ৬ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে এ তিনজনই ধসিয়ে দেন উইন্ডিজ ব্যাটিং লাইনআপ। ভাগাভাগি করে নেন পূর্ণ ১০ উইকেট।

৪ টেস্টের ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ইনিংসে ৫ উইকেট নেন বাঁহাতি চায়নাম্যান কুলদ্বীপ। প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নেয়া অশ্বিন নেন ২টি। ব্যাট হাতে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করা জাদেজার দখলে যায় বাকি ৩ উইকেট।