জমি লিখে না দেয়ায় রড দিয়ে পিটিয়ে পিতার পা ভেঙে দিলো দুই সন্তান

abdur-robরাজবাড়ী শহরের ভবাণীপুর (২নং পৌর কবরস্থানের পাশে) গ্রামে জমি লিখে না দেয়ায় পিতা আব্দুর রব মুন্সিকে (৬০) রড দিয়ে পিটিয়ে দুই পা ভেঙ্গে দিয়েছে তার দুই ছেলে আকরাম মুন্সি (৩৫) ও লিমন মুন্সি(২২)। গত ২৬শে অক্টোবর বিকালে রব মুন্সির নিজ বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

রব মুন্সিকে গুরুতর জখম অবস্থায় প্রথমে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

চিকিৎসাধীন রব মুন্সি জানান, তার ২ ছেলে ও ৪ মেয়ে। মেয়েদের ৪জনেরই বিয়ে হয়ে গেছে। বড় ছেলে আকরামও বিয়ে করেছেন। আকরাম ও লিমন কুষ্টিয়ায় কাপড়ের ব্যবসা করেন।

আগে তিনিও রাজবাড়ী বাজারের কাপড়ের ব্যবসা করতেন। বর্তমানে ঘুরে ঘুরে মশারী বিক্রি করেন। ছেলেরা তাকে ও তার স্ত্রীকে দেখে না। এ জন্য তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তার নিজ বসতবাড়ীর ৩০ শতাংশ জমির মধ্যে ১৫ শতাংশ জমি বিক্রি করে দেবেন। তাতে ৩০ লাখ টাকার মতো পাওয়া যাবে। সেই টাকা ব্যাংকে জমা রেখে লাভ তুলে স্বামী-স্ত্রী মিলে চলবেন। কিন্তু ছেলেরা এতে বাধ সাধেন। তারা তাদের নামে জমি লিখে দেয়ার দাবি জানান। এতে রাজি না হওয়ায় বিকেল ৫টার দিকে ছোট ছেলে লিমন তার বাবাকে ধরে রাখেন এবং বড় ছেলে আকরাম রড দিয়ে দুই পায়ের হাঁটুর নিচ থেকে পিটিয়ে ভেঙে দেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

আব্দুর রব মুন্সির জামাতা রফিকুল ইসলাম বলেন, ইতোপূর্বেও তার শ্বশুর জমি বিক্রির উদ্যোগ নিলে ছেলেরা বিক্রি করতে না দিয়ে তাদের নামে লিখে দিতে বলে। কিন্তু তিনি রাজি না হওয়ায় এর আগেও ছেলেরা তাকে মারধর করেছে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে রাজবাড়ী থানার পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে আব্দুর রব মুন্সির সাথে কথা বলার পর তার বাড়ীতে গিয়ে অভিযুক্ত ছেলেদের খুঁজতে যায়। তবে কাউকে বাড়ীতে পাওয়া যায়নি।