cosmetics-ad

স্বল্প পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া, দাবি দক্ষিণ কোরিয়ার

kim
ফাইল ছবি

উত্তর কোরিয়া বেশ কয়েকটি স্বল্প পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে বলে দাবি করেছে দক্ষিণ কোরিয়া। স্বল্পপাল্লার এসব ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার বিষয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেনি উত্তর কোরিয়া। এই পরীক্ষার খবর সত্যি হলে ২০১৭ সালের নভেম্বরে আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর এটাই হবে উত্তর কোরিয়ার কোনও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, স্বল্প পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মধ্য দিয়ে দূর পাল্লা বা পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা না চালানোর বিষয়ে উত্তর কোরিয়ার প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ হবে না।

ফেব্রুয়ারিতে ভিয়েতনামে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের বৈঠক কোনও চুক্তি ছাড়াই শেষ হওয়ার পর ক্রমেই অধৈর্য্য হয়ে ওঠে পিয়ংইয়ং। কিম বাজে চুক্তির প্রস্তাব দিয়েছে বলে অভিহিত করে বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে যান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। গত মাসে কৌশলগত নিয়ন্ত্রিত অস্ত্র পরিক্ষার কথা স্বীকার করে পিয়ংইয়ং। এবারে দক্ষিণ কোরিয়ার তরফে জানানো হলো তাদের স্বল্প পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার খবর।

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফ অব স্টাফের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পূর্বাঞ্চলীয় হোদো উপত্যকা থেকে এসব ক্ষেপণাস্তের পরীক্ষা চালানো হয়। এই স্থান থেকেই দূর পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে থাকে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৭০ থেকে ২০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরে যেতে সক্ষম এসব ক্ষেপণাস্ত্র জাপান সমুদ্রে বিধ্বস্ত হয়।

গত বছর পারমাণবিক পরীক্ষা বন্ধ এবং আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা না চালানোর ঘোষণা দেয় উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হয় একটি পারমাণবিক স্থাপনা। তারপরও বিশ্লেষকদের আশঙ্কা পারমাণবিক বোমার জ্বালানি তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। পিয়ংইয়ং দাবি করে থাকে, দূর পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রে বহনযোগ্য ছোট আকারের পারমাণবিক বোমা তৈরিতে সক্ষম হয়েছে তারা।