sentbe-top

আনসানে দূতাবাসের ওয়ান স্টপ সার্ভিস ৫ ও ৬ এপ্রিল

সিউল, ৩ এপ্রিল, ২০১৪:

দক্ষিণ কোরিয়ার বাংলাদেশী অধ্যুষিত শহর আনসানে আগামী শনি ও রবিবার ওয়ান স্টপ সার্ভিস দিবে বাংলাদেশ দূতাবাস। দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুবিধার্থে দূতাবাসের কর্মকর্তাগণ দীর্ঘদিন যাবৎ সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে ‘ওয়ান স্টপ সার্ভিস’ প্রদান করে আসছেন।

সেবা প্রদানের স্থানঃ আনসান-শিওয়া (গিয়ংগিদো সিহোংসি, জংহোয়াং ডং ১৩৬৬-৬, সিহোয়া খুংদাং, ৩না ৮০৪হ এলাকার জন্য)

সময়ঃ ৫ এপ্রিল ২০১৪, শনিবার, বিকাল ৫টা থেকে রাত ৭টা পর্যন্ত।
        ৬ এপ্রিল ২০১৪, রবিবার। সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

যেভাবে আসবেনঃ
সিউল সাবওয়ে’র ৪ নাম্বার লাইনের আনসান স্টেশন (안산역-4호선) এ নেমে রাস্তার পার হয়ে ২১, ২০-১, ৩৫০ নাম্বার বাসে শিওয়া সেন্ট্রাল হসপিটালে নামতে হবে। এর পাশেই শিহং মাইগ্র্যান্ট সেন্টারে ওয়ান স্টপ সার্ভিস প্রদান করা হবে। ট্যাক্সি বা অন্য মাধ্যমে আসলে SIHWA LOTTE MART এ নামতে হবে।

যারা এমআরপি পাসপোর্ট এর জন্যে আবেদন করতে চান,তাদের জন্য যা লাগবেঃ
ক) ফি জমাদান। সাধারণ- ১,২০,০০০ উওন, জরুরী- ২,৪০,০০০ উওন।
খ) নির্ধারিত আবেদনপত্র পূরণ (অনলাইনে আবেদনপত্র পাওয়া যায়)।
গ) বর্তমান পাসপোর্ট।
ঘ) জন্মসনদ অথবা জাতীয় পরিচয়পত্র।

যাদের জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্মসনদ নেই তারা দূতাবাসে গিয়ে অথবা ওয়ান স্টপ সার্ভিসে গিয়ে জন্মসনদের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এতে ফি বাবদ ৬০০০ (ছয় হাজার) উওন পরিশোধ করতে হবে।

ঙ) দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি
চ) পরে যে কোন সময়ে দূতাবাসে গিয়ে ছবি তোলা এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট দেওয়া। এরপর পাসপোর্ট ডাকযোগে বা সরাসরি সংগ্রহ করা যাবে।

যাদের পাসপোর্টে ভিসা আছে তারা মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট নিলেও পূর্বের পাসপোর্ট ব্যবহার করতে পারবেন। এ সংক্রান্ত তথ্য বিস্তারিত জানার জন্য সরাসরি বাংলাদেশ দূতাবাসে অফিস সময়ে ফোন করে জেনে নেওয়া যাবে।

বিশেষ প্রয়োজনে যোগাযোগ করুনঃ ০২-৭৯৬-৪০৫৬/৫৭ (কনসুলার শাখা)
০১০-২৭৬১-৫১৯৭ (শাহ আলম),
০১০-৩৩০৯-৩০৬০ (ছোটন),
০১০-৫৮১৯-০০১৭ (মোঃ হোসাইন),
০১০-৯০৬৯-৪৪৩০ (আলমগীর ইমন),
০১০-৭৭১০-২৯৮৭ (জামাল),
০১০-৪৯৯১-৫৩০০ (আকিল),
০১০-৭২১৭-২৯৫৯ (আলী)।

10008593_644348455630434_2073242359_n

sentbe-top