cosmetics-ad

তৃতীয় দিনেই ইনিংস ব্যবধানে হার বাংলাদেশের

india

পাঁচদিনের টেস্টের তৃতীয় দিনটাও পুরোপুরি শেষ করতে পারলো না বাংলাদেশ। তার আগেই ইন্দোর টেস্টে ভারতের বিপক্ষে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয় বরণ করতে হয়েছে সফরকারীদের।

প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৫০ রানের পর মুমিনুল হকরা দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে গেছে ২১৩ রানে। তাতে ভারত জয় পেয়েছে ইনিংস ও ১৩০ রানে। মায়াঙ্ক আগরওয়ালের ডাবল সেঞ্চুরিতে স্বাগতিকরা ৬ উইকেটে ৪৯৩ রান করে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছিল।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) তৃতীয় দিন পুনরায় নিজেদের প্রথম ইনিংস শুরু না করে বাংলাদেশকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত। এবারও শুরু থেকে ধারাবাহিক ব্যাটিং ব্যর্থতা দেখায় টাইগাররা।

সকালে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ১০ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৬ রানে উমেশ যাদবের বলে বোল্ড হন ইমরুল কায়েস। দলীয় ১৬ এবং ব্যক্তিগত ৬ রানে ইশান্ত শর্মার বলে বোল্ড হয়ে বিদায় নেন আরেক ওপেনার সাদমান ইসলাম। দলীয় ৩৭ রানের মাথায় মোহাম্মদ শামির বলে এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে পড়েন দলপতি মুমিনুল (৭)।

এরপর শামির বলে আগরওয়ালের হাতে ধরা পড়েন ২৬ বলে ১৮ রান করা মোহাম্মদ মিঠুন। দলীয় ৪৪ রানে বাংলাদেশ হারায় চার উইকেট। দ্বিতীয় সেশনের শুরতে শামির তৃতীয় শিকারে বিদায় নেন ১৫ রান করা মাহমুদউল্লাহ।

mushfiqurদলীয় ৭২ রানের মাথায় টপঅর্ডারের পাঁচ উইকেট হারানো বাংলাদেশকে তিন অংকের ঘরে পৌঁছে দেন মুশফিকুর রহীম ও লিটন দাস। দু’জনের জুটিতে আসে ৬৩ রান। কিন্তু সেট হয়েও অশ্বিনের বলে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন ৩৯ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ৩৫ রান করা লিটন। এরপর থেকে মিরাজকে সঙ্গে নিয়ে দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই চালিয়ে যান মুশফিক।

দু’জনের ৫৬ রানের জুটিতে তৃতীয় দিনের তৃতীয় সেশন বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। কিন্তু ফেরার পঞ্চম বলে দুর্ভাগ্যবশত বোল্ড হোন মিরাজ। যাদবের বল প্রতিরোধ করতে গিয়ে কনুইয়ে লেগে স্টাম্পে ঢুকে যায় বল। ৫৫ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৩৮ রান করে বিদায় নেন মিরাজ। এর পরপরই শামির চতুর্থ শিকারে পরিণত হোন তাইজুল ইসলাম (৬)।

তবে বাংলাদেশ ইনিংস ব্যবধানে হারের খুব কাছে চলে আসে মুশফিকের বিদায়ের পর। হারের কিনারে দাঁড়িয়ে অশ্বিনের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে পুজারার তালুবন্দীন হোন তিনি। দুই ইনিংস মিলিয়ে বাংলাদেশের হয়ে একমাত্র হাফ সেঞ্চুরি করেছেন মুশি। তার ১৫০ বলে ৬৪ রানের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৭ চারে। এর পরপরই শেষ উইকেট হিসেবে এবাদত হোসেন (১) বিদায় নিলে ইনিংস ব্যবধানে হার নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। আবু জায়েদ অপরাজিত ছিলেন ৪ রানে।

এর আগে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে টস জিতে প্রথম ইনিংসে মুমিনুল-মুশফিকরা অলআউট হয় মাত্র ১৫০ রানে। সেখানে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ভারতের ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়াল একাই করেছেন ২৪৩ রান। ম্যাচ সেরাও হয়েছেন তিনি।

ইন্দোরে ভারতীয় এই ওপেনারের ডাবল সেঞ্চুরি আর চেতশ্বর পূজারা-আজিঙ্কা রাহানে-রবীন্দ্র জাদেজার ফিফটিতে রানের পাহাড় গড়ে টিম ইন্ডিয়া। দ্বিতীয় দিন শেষে ১১৪ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ভারত তোলে ৪৯৩ রান। তাতে বাংলাদেশের থেকে তারা এগিয়ে থাকে ৩৪৩ রানে।

বাংলাদেশ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু করলো লজ্জাজনক হার দিয়ে। ভারতের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টেস্ট হবে ২২ নভেম্বর, কলকাতায়।