sentbe-top

কোরিয়ায় পাসপোর্ট হারিয়ে গেলে বা নবায়ন করতে হলে যা করতে হবে

২২ জানুয়ারী ২০১৩, সিউলঃ
সোহেল রেদোয়ানঃ বাংলাদেশি নাগরিকদের দেশের বাইরে ভ্রমণের জন্য বা অবস্থানের জন্য সরকার পাসপোর্ট প্রদান করে থাকে। কিন্তু আমাদের অনেকেরই অসাবধানবসত বা দুর্ঘটনাজনিত কারণে পাসপোর্ট হারিয়ে যায় বা নষ্ট হয়ে যায়। যদি কোন কারণে আপনার পাসপোর্টটি হারিয়ে বা নষ্ট হয়ে যায় প্রথমেই যা করতে হবে তা হল যত দ্রুত সম্ভব বাংলাদেশের পাসপোর্ট অফিস বা কাছের বাংলাদেশ মিশন এবং স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষ রিপোর্ট করতে হবে। পাসপোর্ট হারিয়ে যাওয়ার বা নষ্ট হয়ে গেলে যা করতে হবে নিচে তার গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলি তুলে ধরা হলো।

নিম্নলিখিত কারণে একজন বাংলাদেশী (যার বৈধ দক্ষিণ কোরিয়ার ভিসা আছে)  নির্দিষ্ট ফরমে নতুন পাসপোর্টের আবেদন করতে পারেনঃ

১. যার পাসপোর্টের মেয়াদ ১০ বছর সম্পন্ন হয়েছে/ সম্পন্ন হতে যাচ্ছে।

২. যার পাসপোর্টের পৃষ্ঠাগুলি শেষ হয়ে গিয়েছে।

৩. যার পাসপোর্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

৪. যার পাসপোর্ট হারিয়ে গেছে/ চুরি হয়েছে অথবা ধ্বংস হয়েছে।

একটা কথা বলা দরকার সবারই নিজেদের পাসপোর্টের একটা কপি স্ক্যান করে কম্পিউটারে বা ফটোকপি নিরাপদ স্থানে রাখা উচিত। ফটোকপি না থাকলে অনেক সময় বিড়ম্বনার শিকার হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

একটি নতুন পাসপোর্ট সংগ্রহ করার জন্য নিম্নলিখিত প্রয়োজনীয় নথিপত্র আবশ্যক:

১. নির্দিষ্ট আবেদনপত্র পূরণ।

২. সাম্প্রতিক সময়ে তোলা পাসপোর্ট সাইজের (অনধিক ছয় মাস) পাঁচ কপি ছবি।

৩. আবেদনকারীর বর্তমান পাসপোর্ট ।

৪. হারিয়ে যাওয়া পাসপোর্টের জন্য নিম্নলিখিত অতিরিক্ত কাগজপত্র জমা দিতে হবে:

ক) পাসপোর্টের একটি ফটোকপি (কমপক্ষে ১ থেকে ৭ নম্বর পৃষ্টা)।

খ) স্থানীয় একটি পুলিশ স্টেশনে রিপোর্ট কপি ।

গ) ইমিগ্রেশন রিপোর্ট স্থানীয় ইমিগ্রেশন অথোরিটি থেকে সংগৃহ করতে হবে ।

ঘ) যার হারানো পাসপোর্টের কোনো অনুলিপি থাকবে না, তাকে বাংলাদেশি জাতীয়তা প্রমাণের জন্য বাংলাদেশের জাতীয়তাপত্র প্রয়েজন যা বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে।

উপরে উল্লেখিত নথিপত্র নিয়ে দূতাবাসে গিয়ে আবেদন করা যাবে।

নতুন পাসপোর্টের জন্য ফিঃ

১. জরুরী : ৩ কার্যদিবসের মধ্যে- ফি ১৮০,০০০উওন।

২. সাধারণ : ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে- ফি ১২,০০০০উওন।

 পাসপোর্ট নবায়ন করতে হলে যা করতে হবেঃ

বাংলাদেশ দূতাবাসে গিয়ে নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করে ব্যাংকে নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে ওই আবেদনপত্রসহ পাসপোর্ট দূতাবাসে জমা দিতে হবে।

১. জরুরীঃ ১দিনের মধ্যে (সকালে জমা দিলে বিকালে পাওয়া যাবে)- প্রতিবছরের জন্য ৪০ হাজার উওন।

২. সাধারণঃ ৭ কার্যদিবসে মধ্যে- ২৬,৫০০ হাজার উওন।

সকল আবেদনপত্র জমা নেওয়া হয় সকাল সাড়ে নয়টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। ডেলিভারি দেওয়া হয় বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে ৫টার মধ্যে।

বিস্তারিত তথ্যের জন্য দূতাবাসের সাহায্য নিতে পারেন এই নাম্বারেঃ ০২-৭৯৬-৪০৫৬

আরো তথ্যের জন্য ভিসিট করুন http://www.bdembseoul.org/

 

 

 

 

sentbe-top