sentbe-top

স্যামসাং ফোনে নিরাপত্তা ঝুঁকি

Samsung_Galaxy_S6নিরাপত্তা নিয়ে ভয়ংকর রকমের আতঙ্কে আছে সারা বিশ্বের প্রায় ৬০ কোটি স্যামসাং ডিভাইস। এমনকি সম্প্রতি বের হওয়া গ্যালাক্সি এস সিক্সের নিরাপত্তায়ও দেখা গেছে ত্রুটি। হ্যাকাররা চাইলে খুব সহজেই আড়ি পেতে সব তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন থেকে।

শিকাগোভিত্তিক নিরাপত্তা ফার্ম ‘নিউ সিকিউর’-এর বরাত দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া এই চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে। নিরাপত্তা সংস্থাটি স্যামসাংয়ের এই বিশাল নিরাপত্তা বিপর্যয়ের জন্য দোষারোপ করছে গ্যালাক্সি সেটের ‘সুইফট কিবোর্ড’ সফটওয়্যারটিকে। এই সফটওয়্যার স্যামসাংয়ের সেটগুলোতে আগে থেকেই ইনস্টল করা থাকে, তাই চাইলেও ব্যবহারকারীরা এটি ফোন থেকে মুছে ফেলতে পারেন না।

মূলত সুইফট কিবোর্ডের সুযোগ রয়েছে মোবাইলের প্রায় সব ফাংশনে প্রবেশ করার। তাই খুব সহজেই চাইলে হ্যাকাররা সুইফট কিবোর্ডের সাহায্যে ম্যালওয়ার নামক ভয়ংকর সফটওয়্যারটি ফোনে প্রবেশ করাতে পারে এবং সেটের ব্যবহারকারীরা তা কখনো জানতেও পারবে না।

তাই হ্যাকারদের জন্য গ্যালাক্সি ফোনের ক্যামেরা, জিপিএস এবং মাইক্রোফোনে প্রবেশ করা খুব সহজ হয়ে গেছে। এমনকি মোবাইলের খুব স্পর্শকাতর বিষয়, যেমন—ব্যক্তিগত ছবি কিংবা টেক্সট মেসেজও চলে যেতে পারে হ্যাকারদের হাতে। এ ছাড়া ফোনকলে আড়ি পেতে ব্যক্তিগত ফোনালাপও শুনতে পারে তারা।

সুইফট কিবোর্ড যদি অব্যবহৃত থাকে, তাতেও কোনো লাভ নেই। হ্যাকাররা ঠিকই তাদের কাজ করে নিতে পারবে।

নিউ সিকিউর জানিয়েছে, এই নিরাপত্তা বিপর্যয় সম্পর্কে গত বছরের নভেম্বরেই তারা কোরিয়ার এই টেক জায়ান্টকে অবহিত করে। কিন্তু স্যামসাং তথ্যটি সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছানোর আগে তিন মাস সময় প্রার্থনা করে তাদের কাছে। এর পর স্যামসাং বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করলেও তা নিউ সিকিউরের সন্তুষ্টি লাভ করতে ব্যর্থ হয়েছে। কারণ, ঠিক কতজন ব্যবহারকারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে, তা এখনো স্পষ্ট করে জানাতে পারেনি স্যামসাং।

sentbe-top