cosmetics-ad

ট্রাম্পের এক টুইটেই অ্যামাজন হারালো ৫৭০ কোটি ডলার!

trump

প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে সরব মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার টুইট নিয়েও বিতর্কের শেষ নেই। এবার আমেরিকান প্রেসিডেন্টের এক টুইটে বিশ্বের সবচাইতে বড় ই-কমার্স সাইট অ্যামাজন হারিয়েছে পাঁচ শতাধিক কোটি ডলার।

আমেরিকার স্থানীয় সময় বুধবার টুইটারে অ্যামাজনের সমালোচনা করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। টুইটে ট্রাম্প বলেন, অ্যামাজন কর দাতা খুচরা বিক্রেতাদের ক্ষতি করছে। এরপরই মূলত শেয়ারের মূল্য কমতে শুরু করে। টুইটের দুই ঘণ্টার মধ্যেই প্রতিষ্ঠানটির ১.২ শতাংশ শেয়ারমূল্য কমে যায়। শেষ পর্যন্ত সামগ্রিকভাবে অ্যামাজন মোট ৫৭০ কোটি ডলার হারায়।

টুইটে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ‘অ্যামাজন করদাতা খুচরা বিক্রেতাদের ক্ষতি করছে। যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ছোট-বড় শহর আর অঙ্গরাজ্যগুলো এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, চাকরি হারিয়েছেন তাদের অনেক কর্মী!’ এদিকে ট্রাম্পের এমন বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে অ্যামাজন। অ্যামাজন বলছে, ‘যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে আমরা গ্রাহক চাহিদা মেটাতে প্রায় ৫০ হাজারের বেশি চাকরির পদ সৃষ্টি করেছি।’

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে অ্যামাজনের এমন বিরোধ এবারই প্রথম নয়। অ্যামাজনের প্রধান জেফ বেজোস মার্কিন প্রভাবশালী মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের কর্ণধার। আর ওয়াশিংটন পোস্টের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সম্পর্ক মোটেও সুবিধার নয়।

চলতি বছরের জুনে ট্রাম্প লিখেছিলেন, ‘অ্যামাজন এবং ওয়াশিংটন পোস্ট কখনো কখনো ইন্টারনেট কর পরিশোধ করে না। এছাড়া ২০১৫ সালে ট্রাম্প বলেছিলেন, ’জেফ বেজোস তার দুই প্রতিষ্ঠানের কর কমাতে ওয়াশিংটন পোস্টের আশ্রয় নেয়। ওয়াশিংটন পোস্ট না থাকলে অ্যামাজনের শেয়ার তলানিতে থাকবে।’