cosmetics-ad

জাপানের দিকে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ উত্তর কোরিয়ার

missile

উত্তর কোরিয়া আজ এমন একটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে যা জাপানের আকাশ দিয়ে উড়ে গিয়ে সাগরে পড়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রটি গুলি করে নামানোর কোনো চেষ্টা জাপান করেনি। তবে দেশটিতে সতর্কতামূলক ঘণ্টা বাজানো হয়েছে এবং অনেকে ক্ষেপণাস্ত্রের সম্ভাব্য আঘাত থেকে বাঁচতে ভূগর্ভস্থ আশ্রয়কেন্দ্রে চলে গেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী বলেছে, উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের নিকটবর্তী একটি এলাকা থেকে মঙ্গলবার ভোরে পূর্বদিক লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্রটি নিক্ষেপ করা হয়। এটি আরো বলেছে, ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের আকাশ অতিক্রম করে উত্তর প্রশান্ত মহাসাগরে পড়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী আরো জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রটি সর্বোচ্চ ৫৫০ কিলোমিটার উচ্চতায় উঠেছিল এবং অন্তত ২,৭০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে পড়েছে।

জাপানি টেলিভিশন দাবি করেছে, ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের উত্তরাঞ্চলীয় ‘হোক্কাইদো’ দ্বীপের উপর দিয়ে উড়ে গিয়ে তিন খণ্ডে বিভক্ত হয়ে সাগরে পড়েছে।

north-korea
ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের উত্তরাঞ্চলীয় হোক্কাইদো দ্বীপের আকাশ দিয়ে উড়ে গিয়ে উত্তর প্রশান্ত মহাসাগরে পড়েছে

চলতি মাসের গোড়ার দিকে উত্তর কোরিয়া প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত মার্কিন দ্বীপ গুয়ামে হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছিল। উত্তর কোরিয়া থেকে গুয়ামে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে হলে সেই ক্ষেপণাস্ত্রকে জাপানের আকাশসীমা দিয়ে উড়ে যেতে হবে।

সাম্প্রতিক সময়ে উত্তর কোরিয়া বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে কিন্তু জাপানের আকাশ দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র উড়ানোর ঘটনা বিরল। এর আগে গত শুক্র ও শনিবার উত্তর কোরিয়া জাপান সাগরে তিনটি স্বল্প-পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে।

আজ (মঙ্গলবার) সকালে ক্ষেপণাস্ত্রটি যখন জাপানের উপর দিয়ে উড়ে যায় তখন দেশটির উত্তরাঞ্চল জুড়ে সতর্কতামূল ঘণ্টা বাজানো হয়। তবে রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল এনএইচকে জানিয়েছে, এর ফলে কোনো ক্ষতি হয়নি।

kim
সম্প্রতি একটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের পর হাসিমুখে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন

জাপানি প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে এই ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপকে একটি ‘গর্হিত কাজ’ এবং ‘অভূতপূর্ব, মারাত্মক ও বিপর্যয়কর হুমকি’ হিসেবে বর্ণনা করে বলেছেন, এ ধরনের পদক্ষেপে আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার মারাত্মক ক্ষতি হবে। তিনি বলেন, জাপানের জনগণের নিরাপত্তা রক্ষার লক্ষ্যে তার সরকার সম্ভাব্য সবকিছু করবে।

এর আগে জাপানের আকাশ দিয়ে ১৯৯৮ ও ২০০৯ সালে দুইবার ক্ষেপণাস্ত্র উড়িয়েছিল উত্তর কোরিয়া। অবশ্য দু’বারই দেশটি দাবি করে, এগুলো সামরিক কাজে ব্যবহৃত ক্ষেপণাস্ত্র নয় বরং এগুলো ছিল আকাশে কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠানোর লক্ষ্যে রকেট পরীক্ষা।