sentbe-top

ফিলিপাইনের ক্যালুকান শহরের সব পুলিশ বরখাস্ত

caloocan-cityফিলিপাইনে একটি শহরের সব পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। রাজধানী ম্যানিলার মেট্রোপলিটন অঞ্চলের ক্যালুকান শহরের কয়েকজন পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে তিন কিশোরকে হত্যা এবং তাদের অন্য কয়েকজনের বিরুদ্ধে বাড়ি লুটের অভিযোগ ওঠার পর এই শহরের পুলিশ ইউনিট ধরেই বরখাস্ত করা হয়েছে।

ম্যানিলা মেট্রোপলিটন অঞ্চল ১৬টি শহর নিয়ে গঠিত। এর মধ্যে একটি শহর ক্যালুকান। মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানের সময় তিন কিশোরকে হত্যা করে শহরটির পুলিশ। আর সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, কয়েকজন পুলিশ সদস্য একটি বাড়ি লুট করছে।

ম্যানিলা মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রধান অস্কার আলবায়াল্ডে জানিয়েছেন, ক্যালুকান শহরের সব পুলিশের ব্যাজ প্রত্যাহার করে সেখানে নতুন ইউনিট দেওয়া হবে। তবে বরখাস্ত হওয়া পুলিশ সদস্যদের মধ্যে যারা নির্দোষ প্রমাণিত হবে, তাদের আবারো কাজে যোগদানের সুযোগ দেওয়া হবে এবং তাদের পুনঃপ্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

ফিলিপাইনের বিচার বিভাগ জানিয়েছে, হত্যা ও নির্যাতনের অভিযোগের প্ররিপ্রেক্ষিতে ক্যালুকান শহর পুলিশের চার সদস্যের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। গত মাসে মাদকবিরোধী অভিযানের সময় ১৭ বছর বয়সি ছাত্র ডেলোস সান্তোসকে হত্যা করে পুলিশ।

কার্ল অ্যাঞ্জেলো আরনাইজ ও রেনাল্ডো ডি গুজমান নামে অন্য দুই কিশোরকে হত্যা, নির্যাতন ও প্রমাণ লোপাটের জন্য ক্যালুকানের দুই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন তাদের বাবা-মা। বিচার বিভাগ এ অভিযোগেরও তদন্ত শুরু করেছে।

গত সপ্তাহে মাদকবিরোধী অভিযানে গিয়ে পুলিশের ১৩ সদস্য একটি বাড়ি লুট করে, যা সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে।

ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তে মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলে ব্যাপকভিত্তিক অভিযান ও ধরপাকড় শুরু করে দেশটির পুলিশ বাহিনী। অভিযান শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত কয়েক হাজার লোক নিহত হয়েছে। এর বিরুদ্ধে আন্দোলন-বিক্ষোভ হয়েছে। কিন্তু ডেলোস সান্তোস নামে ছাত্র খুন হওয়ার পর দুতের্তের ঘোষিত অভিযান নিয়ে নতুন করে ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছে। অভিযানের ওপর কঠোর নজরদারি করছে বিচার বিভাগ।

sentbe-top