cosmetics-ad

দুই কোরিয়ার নেতাদের ঐতিহাসিক করমর্দন

moon

শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধনীতে ঐতিহাসিকভাবে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের বোন কিম ইয়ো-জং এর সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন।

কিমের বোনের নেতৃত্বে দক্ষিণ কোরিয়ায় তিনদিনের সফরে গেছে উত্তর কোরিয়ার উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল। এ দলে আছেন উত্তরের অলঙ্কারিক রাষ্ট্রপ্রধান কিম ইয়ং ন্যামও। প্রেসিডেন্ট মুন উত্তরের এ দুই নেতাসহ বিশ্বের অন্যান্য নেতার সঙ্গেও শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। এরপর দুই কোরিয়ার একতার বিরল নিদর্শনস্বরূপ এক পতাকাতলে দুইদেশের ক্রীড়াবিদদের পদযাত্রা প্রত্যক্ষ করেন তারা।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী পর্ষদ পলিট ব্যুরোর সদস্য কিম ইয়ো-জং দেশটির নেতা কিম জং-উনের পরিবারের প্রথম কোনো সদস্য হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়ায় গেছেন।

winter-olympicপিয়ংচ্যাংয়ে ৯ ফ্রেবুয়ারি থেকে শুরু করে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলমান অলিম্পিকের আসরে তার উপস্থিতিকে অর্থবহ এবং গুরুত্বপূর্ণ হিসাবেই দেখছেন বিশ্লেষকরা।
বিশেষ করে দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের বরফ গলার ক্ষেত্রে ইয়ো-জং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

কূটনীতিকরা বলছেন, ইয়ো-জং এ বছরেরই কোনো এক সময় দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন কে পিয়ংইয়ং সফরের আমন্ত্রণ জানাতে পারেন- এমন ‘সুবর্ণ সুযোগ’ আছে।

মুন উত্তর কোরিয়া গেলে সেটিও হবে ২০০৭ সালের পর সেখানে কোনো দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের প্রথম সফর। শনিবার মুন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট বভন ব্লু হাউজে কিম ইয়ো-জংয়ের সঙ্গে বৈঠকের সময় উত্তর কোরিয়া সফরের আমন্ত্রণ পেতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জাপানের দখলদারিত্ব থেকে কোরিয়ার মুক্তির দিবস ১৫ অগাস্টে মুনকে এ সফরের আমন্ত্রণ জানানো হতে পারে। দিনটিকে দুই কোরিয়াই ছুটির দিন হিসাবে পালন করে।

বিডিনিউজ এর সৌজন্যে