cosmetics-ad

আবারও শীর্ষ করদাতা হাকিমপুরী জর্দার কাউছ মিয়া

hakimpuri-zorda

দেশের বাঘা বাঘা সব ব্যবসায়ীকে ঠেলে আবারও শীর্ষ করদাতা হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন হাকিমপুরী জর্দা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের মালিক মো. কাউছ মিয়া। গত কয়েক বছর ধরে তিনি এ জায়গাটি পাকা করে রেখেছেন। বাংলাদেশের জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সেরা করদাতাদের যে তালিকা প্রকাশ করেছে, সেখানেই ব্যবসায়ী ক্যাটাগরিতে এ তামাক ব্যবসায়ীর নাম সবার ওপরে।

জানা যায়, ৫০ এর দশকে হাকিমপুরী জর্দা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানটির মালিক মো. কাউছ মিয়া তার ব্যবসা শুরু করেছিলেন মাত্র আড়াই হাজার টাকা নিয়ে। তিনি ব্যবসা শুরু করেছিলেন চাঁদপুরে, সেখানে ছিল তার স্টেশনারী দোকান। এর পরের ২০ বছরে ধীরে ধীরে তার ব্যবসা বাড়তে থাকলে তিনি চলে আসেন নারায়ণগঞ্জে। শুরু করেন তামাকের ব্যবসা।

kausarতখন তামাক বাংলাদেশে চাষ হতো না। পাকিস্তানের মারদান থেকে আসতো। তামাকের ব্যবসা থেকেই তার মাথায় আসে জর্দা উৎপাদনের কথা। সেখান থেকে আজ তার শীর্ষ ব্যবসায়ী, শীর্ষ করদাতা হয়ে ওঠা।

এনবিআরের ঘোষণা অনুযায়ী, করদাতাদের উৎসাহ ও স্বীকৃতি প্রদানের অংশ হিসেবে এবার ৭৬ ব্যক্তি, ৫৫টি কোম্পানি ও অন্যান্য ১০ মিলে ১৪১ ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানকে দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী করদাতা ট্যাক্সকার্ড প্রদান করা হবে।

অপরদিকে জেলাভিত্তিক সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী করদাতাদের পুরস্কার নীতিমালা অনুযায়ী ৫১৫ জনকে পুরস্কৃত করা হবে। আগামী ১৩ নভেম্বর থেকে রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে অনুষ্ঠিত আয়কর মেলায় এই ট্যাক্স কার্ড প্রদান করা হবে। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এই ১৪১ করদাতা পাচ্ছেন এবারের পুরস্কার।