cosmetics-ad

ব্যাট করতে নামার আগেই ভারতের স্কোরবোর্ডে ১০ রান

india-women

ম্যাচটা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতে পারতো। ভারতের জয় তুলে নিতে খেলতে হয়েছে ১৯ ওভার পর্যন্ত। কিন্তু লড়াই একদমই হলো না। রান তাড়ায় নামার আগেই যে ভারতের বোর্ডে ১০ রান দিয়ে দিয়েছেন আম্পায়াররা!

এমন ঘটনা ঘটেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজে চলতি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তান এবং ভারতের মধ্যকার ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে। গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে আসলে নিজেদের ভুলের ‘আক্কেল সেলামি’ দিয়েছে পাকিস্তান। ব্যাটিংয়ের সময় পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের আম্পায়াররা তিনবার সতর্ক করার পরও রান নেয়ার সময় পিচ মারিয়েছেন তারা।

সেটাও একবার নয়, দুই দুইবার। প্রতিবারের জন্য জরিমানা করা হয়েছে পাঁচ রান করে। দুইবারে ১০ রান। ভারতের লক্ষ্য ছিল ১৩৪ রানের। ১০ রান হাতে নিয়ে খেলতে নামা ভারতের মেয়েরা ১৯ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে যায়।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বিদের বিপক্ষে ম্যাচ, সেটাও আবার বিশ্বকাপের মতো গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টে। পাকিস্তানের অধিনায়ক জাভেরিয়া খান ম্যাচ শেষে স্বীকার করে নিয়েছেন এটা তাদের দলের বড় একটা ভুল। কথায় কিছুটা ক্ষিপ্তও মনে হলো পাকিস্তান দলপতিকে। তিনি বলেন, ‘আমি কথা বলেছিলাম (আম্পায়ারের সঙ্গে)। তারা আমাকে জানান, খেলোয়াড়দের তিনবার সতর্ক করা হয়েছে, তারপর করা হয়েছে জরিমানা। আমাদের দিক থেকে এটা ভীষণ অপেশাদার একটা কাজ হয়েছে, কারণ আমাদের সতর্ক করা হয়। এবারই প্রথম নয়। শ্রীলঙ্কাতেও একবার এমন হয়েছিল।’

পাকিস্তান ইনিংসের শুরুটা একদম ভালো ছিল না। ৩০ রানে ৩ উইকেট খোয়ানোর পর চতুর্থ উইকেটে ৯৩ রানের জুটিতে দলকে লড়াইয়ে ফিরিয়েছিলেন বিসমাহ মারুফ আর নিদা দার। ওই জুটিই দুইবার পিচ মারিয়েছে। ইনিংসের ১৩তম ওভারে আম্পায়ার একবার সতর্ক করেন। তারপরও ইনিংসের ১৮তম ওভারে আরেকবার পিচের উপর দিয়ে সিঙ্গেল নেন এই যুগল।

শুধু রান জরিমানাতেই বোধ হয় শেষ হচ্ছে না এই ঘটনার। ভুল করা পাকিস্তানের দুই ব্যাটসম্যানের উপর আরও বড় শাস্তি আরোপ করতে পারেন ম্যাচ রেফারি।