sentbe-top

কিয়ংহি বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ ও বিদায় অনুষ্টান

জিশান সরকার(কিয়ংহি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে)
দক্ষিন কোরিয়ার কিয়ংহি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশী শিক্ষার্থী সংগঠন(কুবিডি)এর নবীন বরন ও বিদায় উপলক্ষে এক সাংস্কতিক অনুশঠানের আয়োজন করা হয়।দক্ষিন কোরিয়ার বাংলাদেশী বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী শিক্ষার্থী বন্ধুরা এতে অংশগ্রহন করে।প্রবাসী জীবনের শত কাজের ফাকেও আনন্দে মেতে উঠতে দেখা গেছে সকল সদস্যদের। ঘরোয়া পরিবেশে আয়োজিত এ অনুষ্টানটি উপস্থাপনা করেন হানকুক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ডঃ ওয়াদুদ সুজন ।
অনুষ্টানে প্রথমে নবীনদের ফুল দিয়ে বরন করে নেয় ছোট শিশু সারপা । বিদায়ী তিনজন সদ্য ডক্টরেট ডিগ্রীপ্রাপ্ত ডঃ আওলাদ হুসেন, ডঃ সোহানা পারভিন ও ডঃ ওবাইদুর রহমান কে কুবিডি এর পক্ষ থেকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শোয়েব আহমেদ ।এরপর প্রবীণদের মধ্য থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন কিয়ংহি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী বর্তমানে হানকুক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ডঃ জিহাদ সরকার। বিদায়িদের পক্ষ মাঝে স্মৃতিচারণ বক্তব্যে আবেগঘন পরিবেশ হয়।তারপর ঘরোয়া পরিবেশে এক মনোজ্ঞ সাংস্কতিক অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়। সমবেতকণ্ঠে ”পুরানো সেই দিনের কথা ভুলবি কিরে হায়” .. গানটি দিয়ে অনুষ্টান শুরু করা হয়। অতপর হাসন রাজার গান পরিবেশন করেন জিশান সরকার । গিটার এ ছিল সাব্বির হাসান রচি , কিবোর্ড়ে মেহেদী হোসেন ।

বিদায়ীদের মধ্য থেকে স্ংগীত পরিবেশন করেন ড. আওলাদ হুসেন।নবীনদের মধ্যে সুমনের গান পরিবেশন করে নাসির।

বিদায়ীদের নিয়ে এক মজার খেলার আয়োজন করে মোস্তফা কামাল। এরপর জসিম ভাই এর বিদ্রোহী কবিতা উপস্থিত সকলকে মুগ্ধ করে ।

স্মিতা গায় জন ডেনভার এর ”অল মাই ব্যাগস আর প্যাক্ট আই আম রেডি টু গো” বিদায় এর কথা মনে করিয়ে দেয়। মেহেদি আর স্মিতা  খালিদের সরলতার প্রতিমা গানটিতে সকলে মেতে উঠে ।দর্শকদের অনুরোধে ”ওই দূর পাহাড়ের ধারে দিগত্নের পাশে” গানটি পরিবেশন করা হয়।
সবশেষে শ্রাবনের মেঘগুলো গানটি দিয়ে অনুষ্টানের পরিসমাপ্তি হয়।
এরপর এক বাঙালী ভোজের আয়োজন করে বাংগালীদের এই মিলনমেলা সমাপ্তি টানা হয়।

sentbe-top