sentbe-top

দক্ষিণ কোরিয়া থেকে কমেছে রেমিট্যান্স আয়

remittanceগত মার্চ মাসে প্রবাসীরা দেশে রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রায় ১৪৬ কোটি ডলার, যা গত ৯ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এ মাসে রেমিট্যান্স প্রেরণকারী প্রায় সব দেশ থেকেই প্রবাসী আয় বেড়েছে। তবে কমেছে তিনটি দেশ থেকে। এগুলো হলো—জার্মানি, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া। এদিকে মার্চে দেশে যে পরিমাণ রেমিট্যান্স এসেছে তার ৬০ শতাংশই এসেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, মালয়েশিয়াসহ অন্যান্য দেশ থেকে এসেছে বাকি ৪০ শতাংশ। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, টাকার বিপরীতে ডলার শক্তিশালী অবস্থানে থাকা, হুন্ডি প্রতিরোধে বাংলাদেশ ব্যাংকের নানা পদক্ষেপ ও ব্যাংকগুলোর তৎপরতার কারণে ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স আগের চেয়ে বেশি আসছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ এই ৯ মাসে দেশে মোট এক হাজার ১৮৭ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে। এটি গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১১১ কোটি ডলার বা ১০.৩০ শতাংশ বেশি।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, এ মাসে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে রেমিট্যান্স এসেছে ৮৭ কোটি ৫৩ লাখ ডলার। আগের মাস ফেব্রুয়ারিতে এসেছিল ৭৭ কোটি ৭১ লাখ ডলার। অন্যদিকে এ মাসে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, মালয়েশিয়াসহ অন্যান্য দেশ থেকে এসেছে ৫৮ কোটি ৩৩ লাখ ডলার, যা আগের মাস ফেব্রুয়ারিতে ছিল ৫৪ কোটি ডলার।

প্রতিবেদনে আরো দেখা যায়, বরাবরের মতো মার্চেও সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব থেকেই। এ মাসে সৌদি আরব থেকে রেমিট্যান্স এসেছে ২৮ কোটি ৩৭ লাখ ডলার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৩ কোটি ৩৮ লাখ ডলার এসেছে মধ্যপ্রাচ্যের আরেক দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে। আর তৃতীয় সর্বোচ্চ ১৫ কোটি ৮১ লাখ ডলার এসেছে যুক্তরাষ্ট্র থেকে।

এ ছাড়া মার্চে বাহরাইন থেকে তিন কোটি ৮৩ লাখ ডলার, কুয়েত থেকে ১৩ কোটি ৩৮ লাখ ডলার, ওমান থেকে ৯ কোটি ৮৩ লাখ ডলার, কাতার থেকে ৮ কোটি ৬৮ লাখ ডলার, যুক্তরাজ্য থেকে ১০ কোটি ৭৫ লাখ ডলার, মালয়েশিয়া থেকে ১০ কোটি ১৩ লাখ ডলার, ইতালি থেকে ৫ কোটি ৯৫ লাখ ডলার ও সিঙ্গাপুর থেকে ৩ কোটি ১৬ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে।

সৌজন্যে- কালের কণ্ঠ

sentbe-top