এক মাস ধরে মালয়েশিয়ার বিমানবন্দরে আটকে আছেন তিনি!

hasanবিমানবন্দরই যেন সিরীয় যুবক হাসান আল-কোন্তারের ঠিকানা হয়ে উঠেছে। মালয়েশিয়ার বিমানবন্দরের ট্রানজিট সেকশনে এক মাসের বেশি সময় ধরে আটকা পড়ে রয়েছেন তিনি। সিরিয়ায় দীর্ঘদিন ধরেই চলছে গৃহযুদ্ধ। আর এ গৃহযুদ্ধের ফলেই তার এ দুর্ভোগ।

হাসান আল-কোন্তার সম্প্রতি কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে আটকে থাকা তার নিজের একটি ভিডিও পোস্ট করেন। এরপর তার দুর্দশার কথা বিশ্ববাসী জানতে পারে।

কিন্তু কেন তিনি এখানে আটকে রয়েছেন? এ প্রসঙ্গে জানা যায়, তিনি প্রথমে সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) কাজ করতে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ওয়ার্ক পারমিট খোয়ানোর পর ২০১৬ সালে তাকে সেখান থেকে মালয়েশিয়ায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এরপর ইউএই ২০১৭ সালে তাকে মালয়েশিয়ার একটি আটক কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেয়। সেখানে তাকে তিন মাসের টুরিস্ট ভিসা দেওয়া হয়েছিল। তবে তিনি মালয়েশিয়ায় ঢুকতে পারেননি। এয়ারপোর্টেই আটকে যান। এরপর হাসান কম্বোডিয়া এবং ইকুয়েডর যাওয়ার চেষ্টা করলেও সফল হতে পারেন নি।

ভিসার মেয়াদ শেষের পরও থেকে যাওয়ার কারণে তাকে জরিমানা গুণতে হয়েছে এবং তিনি মালয়েশিয়ায় কালো তালিকাভুক্তও হয়েছেন। এখন তিনি মালয়েশিয়া বিমানবন্দরে আটকা পড়ে আছেন। বিমানবন্দর ছাড়তে পারছেন না, দেশের ভেতরেও ঢুকতে পারছেন না।

এ বিষয়টি নিয়ে মালয়েশিয়া বিমানবন্দর কিংবা ইমিগ্রেশন বিভাগ কোনো মন্তব্য করেনি।