sentbe-top

জার্মানিতে বাংলাদেশি শরণার্থীদের আয় কত?

germany-belalইউরোপের দেশ জার্মানিতে কর্মসংস্থানের সুযোগ অনেক। ফলে, দেশটিতে আসা শরণার্থী এবং অভিবাসীরা সহজেই কাজ খুঁজে নিতে পারেন। কোলন শহরে বসবাসরত বাংলাদেশি শরণার্থী বেলাল হোসেন। বর্তমানে তিনি দেশটিতে রাজনৈতিক শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছেন।

তার অভিজ্ঞতার কথা জানান। বেলাল হোসেন দেশটিতে একটি ফাস্টফুডে কাজ করেন। ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে জার্মানিই তার কাছে প্রিয়। মূলত উন্নত জীবন-যাপনের জন্য তিনি জামার্নিতে যান।

তিনি ২০১৪ সালে কাজের তাগিদে জার্মানিতে পাড়ি জমান। ইউরোপের অন্যান্য দেশ থেকে তার মতো অনেকেই জার্মানিতে আসেন। দেশটিতে প্রবাসীদের কাজের মূল্যায়ন করে বলেই আমরা ভালো মানের টাকা আয় করতে পারি বলে জানান এ শরণার্থী।

রাজনৈতিক আশ্রয় গ্রহণ করেছেন বেলাল হোসেন। তার মতো আর অনেক শরণার্থী দেশটিকে খুবই পছন্দ করে। ফলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বহু মানুষ জার্মানিতে পাড়ি জমান। তবে বাংলাদেশিদের জন্য নিরাপদ হিসেবে মনে করেন তিনি। দেশটিতে আবেদন করা মুসলিমদের নাগরিকত্ব অধিকাংশই বাতিল হয়। কিন্তু বেলালের ক্ষেত্রে সেটা ঘটেনি।

‘জার্মান কর্তৃপক্ষ আমাকে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় দিয়েছে। ভাষা শেখার পাশাপাশি জার্মানিতে কাজ করারও সুযোগ পেয়েছি ‘সিলেটের এ বাসিন্দা মনে করেন দেশটিতে কাজ করার বহু ধরনের সুযোগ আছে।

তিনি মনে করেন, জামার্নিতে শরণার্থী আসার পর ভাষা শেখাতে ব্যাপক গুরুত্ব দিতে হবে। এদেশের ভাষা শিখলে তার কাজের অভাব হবে না। যে ভালোভাবে ভাষা বলতে পারেন সে দেশটির অনেক ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাবেন। রেস্টুরেন্টে কিংবা বিভিন্ন ফ্যাক্টরিতে কাজ পাবেন।

বেলাল জানান, মাসে ১২০০ থেকে ১৫০০ ইউরো ইনকাম করা সম্ভব। পাশাপাশি যদি কেউ বিশেষ প্রশিক্ষণ নেয় তাহলে দেশটিতে স্থায়ীভাবে চাকরি পেতে পারেন। গত কয়েক বছরে জার্মানিতে বাংলাদেশির সংখ্যা বেড়েছে। নতুন আগতদের একটা বড় অংশই বাংলাদেশি শরণার্থী।

sentbe-top