cosmetics-ad

দেশবিরোধী চক্রান্তঃ কোরিয়ান সাংসদের ১২ বছর জেল

অনলাইন প্রতিবেদক, সিউল, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪:

সরকার ও দেশবিরোধী চক্রান্তে জড়িত থাকার দায়ে অভিযুক্ত কোরিয়ান সাংসদ লি সক কিকে ১২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত। বামপন্থী এই সাংসদ ইউনাইটেড প্রোগ্রেসিভ পার্টির সদস্য ছিলেন। সুওন জেলা আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ার সমর্থনে দেশে সশস্ত্র অভ্যুত্থান ঘটানোর জন্য লি একটি নিষিদ্ধ সংগঠনের সদস্যদের সাথে কাজ করছিলেন বলে যে অভিযোগ তোলা হয়েছিল তার সত্যতা পাওয়া গেছে।

140217_p01_leftist

আদালত বলেন একটি পরিকল্পিত আন্দোলনের আড়ালে যে নাশকতার পরিকল্পনা করা হয়েছিল তা এ অঞ্চলের শান্তি বিনষ্ট করার জন্য যথেষ্ট ভয়ংকর ছিল এবং লি ও তাঁর সহকর্মী ইউপিপির সদস্যরা যে কোন সময় এটি বাস্তবায়নে প্রস্তুত ছিলেন। বিচারপতি কিম জং-সু রায়ে বলেন, “নাশকতার বিস্তারিত পরিকল্পনা জানা যায় নি। তবে নেতৃত্বদানকারীর সংকল্প, কর্মীদের আত্মনিবেদন, দুই মাসেরও অধিক অময় ধরে প্রস্তুতি এবং আন্দোলনের বিষয়ে ফাঁস হওয়া অন্যান্য তথ্যাদি বিবেচনায় এর হুমকি ছিল তাৎপর্যপূর্ণ।”

বিচারক বলেন, “বিদ্রোহের উপযুক্ত সময়ের জন্য অপেক্ষা করার পাশাপাশি একটি রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন গণসংগঠন এমনকি জাতীয় সংসদেও তাঁরা ছড়িয়ে পড়েছিল।”

আদালত লির ভোটাধিকার এবং সরকারের হয়ে কাজ করার সুযোগের উপরও ১০ বছরের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। বাদীপক্ষ তাঁর ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ আবেদন করেছিল। একই অভিযোগে ইউপিপির খিওংগি প্রদেশ শাখার সহ-সভাপতি হং সুং সক সহ আরও পাঁচ ইউপিপি সদস্যকে চার থেকে সাত বছরের জেল দেয়া হয়েছে।

ইউপিপি এক বিবৃতিতে আদালতের রায়ে নিন্দা জ্ঞাপন করে বলেছে, এই রায়ে এটাই প্রমাণিত হয় যে বাদীপক্ষের মতো বিচারকরাও পার্ক সরকারের কাছে তাঁদের নৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে ফেলেছেন।

ওদিকে লি’র আইনজীবী কিম ছিল জুন উচ্চ আদালতে আপীল করবেন বলে জানিয়েছেন। আগামী বছরের শুরুতে হাই কোর্ট হয়ে মামলাটি সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত গড়াবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।