cosmetics-ad

মেসিকে হতাশ করে ফের ফিফা সেরা রোনালদো

ronaldo

বিষয়টি অনেকটা অনুমিতই ছিল। এক বছরের সাফল্য বিচারে দেওয়া হয় ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ পুরস্কার। গত একটা বছর অন্যদের চেয়ে সাফল্যে অনেকটা এগিয়ে ছিলেন ক্রিশ্চিয়নো রোনালদো। অনুমিত ভাবে তাই ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ পুরস্কারটা রোনালদোর হাতেই উঠেছে। পুরস্কারটা টানা দ্বিতীয়বার উঠল রোনালদোর হাতে।

ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় রোনালদোর সঙ্গে ছিলেন লিওনেল মেসি ও নেইমার। ব্রাজিলিয়ান অধিনায়কের হাতে এবার বর্ষসেরার পুরস্কার উঠবে এমন স্বপ্ন নেইমারের ‘পাগল সমর্থক’রাও হয়তো দেখছিলেন না! কিন্তু মেসিভক্তরা তাকিয়েই ছিলেন। ‘হলেও হতে পারে’ এমনটা মনে করে। কিন্তু অপেক্ষা সুখকর হয়নি তাদের।

রোনালদোর হাতে যদি পুরস্কারটা না উঠত তাহলেই বড় বিস্ময়কর মনে হতো। আগের বছরের মতো গত বছরটাও স্বপ্নের মতোই কেটেছে রোনালদোর। লা লিগা জিতেছেন, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন, ক্লাব বিশ্বকাপ জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়ে। পর্তুগালকে তুলেছেন কনফেডারেশনস কাপের সেমিফাইনালে।

লিওনেল মেসিরও ভালো কেটেছে গত বছরটা। লা লিগায় সর্বোচ্চ ৩৭ গোল করার পাশাপাশি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন মেসি। কিন্তু রোনালদোর মতো ট্রফি জিততে পারেননি। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে শেষ পর্যন্ত ধুঁকেছে আর্জেন্টিনা। এই বিষয়গুলোই ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ হওয়া থেকে এবার পিছিয়ে দিয়েছে মেসিকে।

ফিফা সেই ১৯৯১ সাল থেকে বর্ষসেরা পুরস্কার দিয়ে আসছে। কিন্তু এই ‘দ্য বেস্টে’র উদ্ধব ২০১৬ সাল থেকে। ২০১০ সাল থেকে ব্যালন ডি’অরের সঙ্গে মিলে ফিফা ব্যালন ডি’অর নাম হয় ফিফা বর্ষসেরার। কিন্তু ছয় বছর পর আবারো আলাদা হয়ে যায় ফিফার বর্ষ সেরা পুরস্কার ও ব্যালন ডি’অর।

এক নজড়ে ২০১৭ সালের ফিফা বর্ষসেরা

বর্ষসেরা ফুটবলার (দ্য বেস্ট): ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (রিয়াল মাদ্রিদ/পর্তুগাল)।

বর্ষসেরা কোচ: জিনেদিন জিদান (রিয়াল মাদ্রিদ)।

বর্ষসেরা গোলরক্ষক: জিয়ানলুইজি বুফন (জুভেন্টাস/ইতালি)।

পুসকাস অ্যাওয়ার্ড (সেরা গোল): অলিভার জাইরুড (আর্সেনাল)।

বর্ষসেরা নারী কোচ: সারিনা উইগম্যান (হল্যান্ড)।