ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্তকরণ মহড়ায় থাকবে জাপানও

north-korea-missileউত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে ক্রমবর্ধমান নিরাপত্তা হুমকির মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্তকরণ মহড়ায় অংশ নিতে যাচ্ছে জাপান।

২০১৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত যৌথ মহড়ার মধ্যে এটি হবে ষষ্ঠ। সম্প্রতি উত্তর কোরিয়া সর্বোচ্চ উচ্চতা ও সর্বাধিক পাল্লার পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর দুই সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে নতুন যৌথ মহড়ার ঘোষণা দিল তিন দেশ। উত্তর কোরিয়ার এই ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপান সাগরের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে গিয়ে পড়ে।

রোববার জাপানের উত্তরাঞ্চলে একটি গ্যারিসন পরির্দশনে গিয়ে সেখানে দেওয়া বক্তব্যে জাপানি প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইতসুনোরি অনোদেরা যৌথ মহড়ায় তার দেশের অংশ নেওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেন। জাপান সাগরের কাছে সোম ও মঙ্গলবার ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্তকরণের এ মহাড় হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা বলেন, আকাশে বস্তু শনাক্তকরণের অনুশীলন ও এ বিষয়ে তিন দেশের মধ্যে তথ্য আদান-প্রদান করা হবে যৌথ মহড়ায়। তিনি আরো বলেন, বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার পদ্ধতিও পর্যালোচনা করা হবে।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ও পরমাণু কার্যক্রম নিয়ে চলতি বছরে বিশ্বে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বেড়ে যায়। জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বারবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে দেশটি। ষষ্ঠ পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর তারা দাবি করে, তাদের ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো স্থানে আঘাত করতে পারবে। এর জবাবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুমকি দেন, প্রয়োজনে উত্তর কোরিয়াকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেওয়া হবে।

তথ্যসূত্র : এনডিটিভি অনলাইন