Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

তামিমদের বিরুদ্ধে খেলবেন না আফ্রিদি

tami afridi
শাহিদ আফ্রিদি ও তামিম ইকবাল

এবার পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) শুরু থেকে বল হাতে দুর্ধর্ষরূপে দেখে গেছে শাহিদ আফ্রিদিকে। তবে দুর্ভাগ্য এই পারফরমেন্সের ধারাবাহিকতা রাখতে পারছেন না। আজ এলিমিনেটর ম্যাচে তামিম ইকবালের পেশোয়ার জালমির বিপক্ষে খেলা হচ্ছে না তার। হাঁটুর ইনজুরির কারণে মাঠে নামতে পারবেন না। পাকিস্তানের জিও নিউজ এ খবর জানিয়েছে।

লিগের শুরুতে টানা বেশ কয়েকটি ম্যাচ জিতেছে শাহিদ আফ্রিদির করাচি কিংস। এতে তার অবদান ছিল অনেক। ব্যাট হাতে ছন্দে থাকতে না পারলেও বল হাতে সুবিচার করেছেন তিনি। নয় ম্যাচে শিকার করেছেন ১৩টি উইকেট। তার সেরা বোলিং ছিল ১৮ রানে ৩ উইকেট। দুর্ভাগ্য আজ মাঠে নামা হবে না অধিনায়কের।

আজ দলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘হাঁটুর ইনজুরির কারণে এলিনেটর ম্যাচে নামা হচ্ছে না অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদির।’

আজকের ম্যাচে জয়ী দলই যাবে ফাইনালে।

পিএসএল মাতালেন তামিম-মোস্তাফিজ

chardike-ad

ক্রিকইনফো

পাকিস্তান সুপার লিগের তৃতীয় আসর চলছে। এতে অংশ নিয়েছিলেন বাংলাদেশের চার তারকা ক্রিকেটার- তামিম ইকবাল, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও সাব্বির রহমান। পেশোয়ার জালমির হয়ে খেলেছেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ও সাব্বির। কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে অভিজ্ঞ মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং পেস সেনসেশন মোস্তাফিজুর রহমান ছিলেন লাহোর কালান্দার্সে। শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফির জন্য পিএসএলের পুরো আসরে খেলতে পারেননি তিনি। পিএসএলে এই স্বল্প সময়ে কেমন ছিল তাদের পারফরমেন্স?

তামিম ইকবাল : পেশোয়ার জালমির হয়ে দুর্দান্ত খেলেছেন বাংলাদেশের ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। খেলেছেন পাঁচটি ম্যাচ। এ পর্যন্ত লিগের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকার পাঁচ নম্বরে আছেন তিনি। ৩৩.৫০ গড়ে এবং ১০৭.২০ স্ট্রাইক রেটে করেছেন ১৩৪ রান। বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন ১৩টি আর ছক্কা ৩টি। তার চার-ছক্কার সংখ্যা থেকেই বোঝা যাচ্ছে, ব্যাট হাতে কতটা মারমুখী ছিলেন তিনি।

মোস্তাফিজুর রহমান : লাহোর কালান্দার্সের হয়ে পাঁচটি ম্যাচ খেলেছেন মোস্তাফিজুর রহমান। উইকেট শিকার করেছেন পাঁচটি। পঞ্চম ম্যাচটি ছাড়া দলের সবচেয়ে কিপটে বোলার তিনিই ছিলেন। অভিষেক ম্যাচেই শিকার করেছিলেন দুটি উইকেট। মেডেন ওভার ছিল একটি। ইকোনমি রেট ৬.৪৩।

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ : কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে দুটি ম্যাচ খেলেছেন মাহমুদুল্লাহ। একটি ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং কোনোটিই করা হয়নি তার। আরেকটিতে ব্যাট হাতে ১৩ বলে ১৫ রান করেন। আর বল করেন এক ওভার, তবে কোনো উইকেট পাননি।

সাব্বির রহমান : পেশোয়ার জালমির হয়ে দুটি ম্যাচ খেলেছেন সাব্বির। এক ম্যাচে ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছিলেন। করেছিলেন ১১ রান।