জাপানের স্থানীয় নির্বাচনে লড়ছেন বাংলাদেশির স্ত্রী

japanপৃথিবীর বহু দেশেই প্রবাসীরা সে দেশের মূলধারার রাজনীতির সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে পেরেছেন এবং সাংসদসহ নানা রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন করছেন। সম্প্রতি কানাডার নির্বাচনে বাংলাদেশি ডলি বেগমের বিজয় প্রবাসীদের সাফল্যের মাইলফলক।

মীর খাজুয়ে। স্বামী মীর রেজাউল করিম দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে জাপানের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তিনি সম্মিলিত বিরোধী জোটের প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করছেন। নির্বাচনে অংশগ্রহণের অভিপ্রায়ে তিনি জাপান আইন ও বিচার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র কর্মকর্তা হিসেবে গত মার্চে অবসর নেন।

মাত্র ১৩ হাজার বাংলাদেশি প্রবাসীর দেশ জাপানে তেমন সাফল্য নজরে না আসলেও বর্তমানে ফুটবল ও ক্রিকেটে প্রবাসীরা বিভিন্ন দেশে দিনে দিনে এগিয়ে চলেছে।

japanএই প্রথম একজন প্রবাসীর স্ত্রী জাপানের রাজনীতিতে নিজের অবস্থান তৈরি করে নিচ্ছেন। আগামী রোববার অনুষ্ঠিত হচ্ছে জাপানে স্থানীয় সরকার নির্বাচন। টোকিওর পাশের জেলা চিবা জেলার মাৎসুদো সিটির সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এই প্রথমবারের মতো একজন বাংলাদেশি প্রবাসীর সহধর্মিণী অংশগ্রহণ করছেন।

নির্বাচনে বিজয়ী হলে জাপানের ইতিহাসে একটি বাংলা নামের অংশ লিপিবদ্ধ হবে। দ্বিতীয় প্রজন্মের বাংলাদেশি সন্তানেরা ইতোমধ্যেই জাপানে নিজেদের স্থান পাকা করে নিয়েছেন, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা,আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সদস্য, নেভি, এয়ার সদস্য, বিভিন্ন কর্পোরেটে উচ্চতম স্থানে নিজেদের যোগ্যতা দেখিয়ে চলছে।