sentbe-top

বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেবে থাইল্যান্ড :

বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেবে থাইল্যান্ড। সম্প্রতি থাইল্যান্ড সফরকালে বায়রা প্রতিনিধিদলকে এ কথা জানিয়েছে থাইল্যান্ডের শ্রম মন্ত্রণালয়।

বিভিন্ন সেক্টরে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে তারা। বিশেষ করে শিল্প, নির্মাণ ও মৎস্য খাতে কর্মী নিতে চায় থাইল্যান্ড।

এর ফলে নতুন করে থাইল্যান্ডে জনশক্তি রফতানির পথ সুগম হয়েছে।

10374859_687078178051205_235455643600167191_nজানা যায়, এখন থাইল্যান্ডে বিদেশি শ্রমিকের সংখ্যা নিরূপণ ও নিবন্ধন করছে। অক্টোবরে এই কাজ শেষ হবে। এরপর থেকেই বাংলাদেশি শ্রমিক নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে দীর্ঘদিনের বিবাদ ভুলে বিদেশে শ্রমবাজার অনুসন্ধানে বায়রার এ কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি। সেইসঙ্গে থাইল্যান্ড সফরে বায়রা প্রতিনিধি দলকে অনুপ্রাণিত করেন তিনি।

এর আগে মন্ত্রীর নির্দেশে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব একটি চিঠি বায়রা প্রতিনিধি দলকে দিয়েছিলেন। সেই চিঠি নিয়েই থাইল্যান্ড সফরে যান বায়রা প্রতিনিধি দল।

প্রসঙ্গত, গত ৪ সেপ্টেম্বর বায়রার সিনিয়র সহ-সভাপতি আলী হায়দার চৌধুরীর নেতৃত্বে তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল থাইল্যান্ড যান। প্রতিনিধি দলের অপর সদস্যরা হলেন- বায়রার মহাসচিব মনসুর আহমেদ কালাম এবং থাইল্যান্ডে বায়রার একমাত্র প্রতিনিধি শাহজাদা মোহাম্মদ আলী খাঁন। প্রতিনিধি দলটি জনশক্তি রফতানি সংক্রান্ত এক সফর শেষে গত ৭ সেপ্টেম্বর দেশে ফেরেন।

শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বায়রা জানায়, সফরকালে প্রতিনিধি দলটি থাইল্যান্ডের শ্রম মন্ত্রণালয়ের সচিব জিরাসুক সুগানধজ্যোতি এবং আন্তর্জাতিক শ্রমিক নিয়োগকারী ব্যুরোর পরিচালক কমল সাওয়াচুকুর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। বৈঠকে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয় বাংলাদেশে থেকে শ্রমিক নেওয়ার বিষয়ে তাদের আগ্রহের কথা জানান।

বায়রার সিনিয়র সহ-সভাপতি আলী হায়দার চৌধুরী জানান, থাইল্যান্ড নতুন করে বাংলাদেশি শ্রমিক নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত সুখবর। দেশটিতে এখন বিদেশি শ্রমিকের সংখ্যা নির্ণয় ও নিবন্ধন করছে। অক্টোবরে এই কাজ শেষ হলে বাংলাদেশি শ্রমিক নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হতে পারে।

এদিকে সফর শেষে বায়রার সভাপতি মোহাম্মদ আবুল বাসার ও মহাসচিব মনসুর আহমেদ কালাম গত ১০ সেপ্টেম্বর প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের কাছে প্রতিনিধি দলের নিয়ে আসা থাই সরকারের শুভেচ্ছা স্মারক হস্তান্তর করেন।

দু’বছর আগে থাইল্যান্ড বাংলাদেশ কর্মী নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। কিন্তু বিভিন্ন কারণে এটি বাস্তবায়ন হয়নি।

sentbe-top