sentbe-top

স্যামসাংয়ের মুনাফা ৩ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন

Samsungচলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) দক্ষিণ কোরিয়ার ইলেকট্রনিক পণ্য নির্মাতা কোম্পানি স্যামসাংয়ের মুনাফা তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছেছে। এজন্য প্রতিযোগিতাপূর্ণ বাজারে প্রতিষ্ঠানটির স্মার্টফোন বিক্রি কমে যাওয়াকে দায়ী করা হয়। সম্প্রতি প্রকাশিত গত প্রান্তিকের চূড়ান্ত আর্থিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায় স্যামসাং। এর আগে চলতি মাসের শুরুর দিকে তৃতীয় প্রান্তিকে মুনাফার পরিমাণ প্রায় ৬০ শতাংশ কমতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। খবর বিবিসি।

স্যামসাংয়ের জানানো তথ্যমতে, বিগত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৬০ শতাংশ হারে কমে জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা দাঁড়ায় ৩৮০ কোটি ডলারে। এছাড়া এ সময় প্রতিষ্ঠানটির প্রতি শেয়ারের মূল্য ২০ শতাংশ হারে কমেছে। সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী গ্যালাক্সি সিরিজের ডিভাইসের বিক্রি উল্লেখযোগ্য কমেছে। মূলত এ কারণেই স্যামসাংয়ের মুনাফা তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে মনে করছেন প্রতিষ্ঠানটির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

গ্যালাক্সি সিরিজের ডিভাইসের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটির ওএলইডি ডিসপ্লে বিক্রিও এ সময় কমেছে। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটির পরিচালন ব্যয় বেড়েছে, যা মুনাফা কমার অন্যতম কারণ। আর্থিক প্রতিবেদনে স্যামসাং জানায়, তীব্র প্রতিযোগিতার মোবাইল ডিভাইস বাজারে কম দামের পণ্যের আধিক্য ঘটেছে। এছাড়া গ্রাহকরাও কম দামের ডিভাইসের প্রতি বেশি আগ্রহী। এসব কারণে স্যামসাংয়ের মুনাফা কমেছে।

সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বব্যাপী অ্যাপল, স্যামসাং, গুগল, মাইক্রোসফটের মতো শীর্ষস্থানীয়দের পাশাপাশি নতুন অনেক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এ প্রতিষ্ঠানগুলো অনেক কম মূল্যে বাজারে মোবাইল ডিভাইস সরবরাহ করছে। অন্যদিকে তীব্র প্রতিযোগিতার মুখে শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলোও তাদের ডিভাইসের গড় দাম কমাতে বাধ্য হচ্ছে। ডিভাইসের দাম কমানোর ফলে বিক্রয় বৃদ্ধি পেলেও আয় কমেছে। স্যামসাংয়ের জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকের আয়েও এ ধরনের প্রবণতা গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। এছাড়া সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে বহুল প্রত্যাশিত আইফোনের পরবর্তী সংস্করণ বড় ডিসপ্লের আইফোন সিক্স ও সিক্স প্লাস উন্মুক্ত করে মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানি অ্যাপল। এটিও স্যামসাংয়ের মুনাফা কমার একটি অন্যতম কারণ বলে উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে।

তবে চলতি (অক্টোবর-ডিসেম্বর) প্রান্তিকের শেষ নাগাদ স্যামসাংয়ের নতুন মোবাইল ডিভাইসের সরবরাহ বাড়বে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। অবশ্য চলতি বছরের শুরুর দিকে গ্যালাক্সি সিরিজের এসফাইভ বাজারে আনে প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু বাজারে ছাড়ার পর গ্রাহকদের কাছ থেকে তেমন সাড়া পায়নি নতুন ডিভাইসটি। পাশাপাশি সাম্প্রতিক বিবৃতিতে টেলিভিশন খাতেও ব্যবসা প্রসারের কথা জানায় প্রতিষ্ঠানটি।

স্যামসাংয়ের জানানো তথ্যমতে, জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে তাদের মুনাফা গত তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন। প্রতিষ্ঠানটি গত কয়েক বছরে গ্যালাক্সি সিরিজের ডিভাইস ও অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম দিয়ে বাজারে শীর্ষস্থান দখল করে নেয়। কিন্তু সাম্প্রতিক মাসগুলোয় কিছুটা অসুবিধার মধ্যেই রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। কারণ দামি ডিভাইসগুলোর ক্ষেত্রে বাজার দখল বাড়ছে মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানি অ্যাপলের। আর কম দামের ডিভাইসের বাজার দখল করে নিচ্ছে জিয়াওমি ও লেনোভোর মতো প্রতিষ্ঠান। এছাড়া সংশ্লিষ্ট খাতের অন্যান্য কোম্পানিও ধারাবাহিকভাবে মার্কিন শীর্ষ সার্চ ইঞ্জিন গুগলের বহুল ব্যবহূত অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের ডিভাইস বাজারে আনছে। ফলে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন বাজারগুলোয় দখল হারাচ্ছে স্যামসাং। মন্দাভাব কাটিয়ে উঠতে আসন্ন ছুটির মৌসুমে প্রতিষ্ঠানটির স্মার্টফোন ও ট্যাবলেটের বিপণনে গত বছরের তুলনায় অতিরিক্ত ব্যয় করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, শিগগিরই সংশ্লিষ্ট খাতে আগের ধারায় ফিরবে স্যামসাং।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, সম্প্রতি বাজারে আসা আইফোন সিক্স স্যামসাং ডিভাইসের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে কোরিয়ার প্রতিষ্ঠানটিকে তাদের ডিভাইসের নকশায় পরিবর্তন আনার পরামর্শও দেন তারা। ধারণা করা হচ্ছে, বাজারে আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে স্যামসাং অল্প সময়ের মধ্যে একাধিক নতুন ডিভাইস বাজারে ছাড়তে পারে। বণিকবার্তা।

sentbe-top