cosmetics-ad

বিকেলে মাঠে নামছে টাইগাররা

bangladesh-india

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ভারতের বিপক্ষে বিকেলে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বেলা ৩টায়। এ ম্যাচে শক্তিশালী ভারতকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিচ্ছে টাইগাররা।

ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেন, ভারতের বিপক্ষে এ সিরিজটা আট-দশটা সিরিজের মতোই। তবে অন্যান্য দলের তুলনায় ভারতের সঙ্গে খেলার সময় সবার চোখ একটু অন্যরকম থাকে বলে জানান দেশসেরা এই পেসার।

তিনি আরো বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে খেলা সবসময় চ্যালেঞ্জিং। যদিও সবার সঙ্গে খেলাই চ্যালেঞ্জিং। তারপরও বলবো সবার চোখ একটু অন্যরকম থাকে যখন ভারতের সঙ্গে খেলা হয়। সব ক্রিকেটাররাও একটু অন্যরকমভাবে পারফর্ম করতে চায়। তবে আমার কাছে একটি আট-দশটা সিরিজের মতোই।’

ভারতের বিপক্ষে এ পর্যন্ত ২৯ ম্যাচ খেলে মাত্র তিনটি ম্যাচে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। পরিসংখ্যান নিয়ে ভেবে অতিরিক্ত প্রেসার নিতে রাজি নন টাইগাররা। একটার পর একটা ম্যাচ খেলে এগিয়ে যেতে চান বলে জানান দেশসেরা এ পেসার।

ফেভারিটের তকমাটা ভারতকে দিলেও নিজেদের মোটেও ছোট করে দেখছেন না বাংলাদেশ দলপতি। ২০০৭ বিশ্বকাপের পর থেকেই নিজেদের উপর আত্মবিশ্বাস বেড়েছে জানিয়ে মাশরাফি বলেন, যখন মাঠে নামি তখন কখনো চিন্তা করি না যে কে ফেভারিট। ২০০৭ বিশ্বকাপের পর আমরা বিশ্বাস করতে শুরু করি আমরা বিশ্বের যেকোনো দলকে হারাতে পারবো। বড় দলের সঙ্গে খেলা হলে তারাই স্বাভাবিকভাবে ফেভারিট। কিন্তু এটা চিন্তা করি না যে আমরা তাদেরকে হারাতে পারবো না।

তবে বৃষ্টি নিয়ে ভাবাচ্ছে বাংলাদেশকে। মিরপুরের ড্রেনেজ সিস্টেম ফতুল্লার তুলনায় অনেক ভালো হলেও এক ঘণ্টা বা আধা ঘণ্টা বৃষ্টি হলে অনেকগুলো ওভার কমে যাবে। যার ফলে এক অবস্থানে থাকতে পারে যেখান থেকে ফিরে আসা অনেক কঠিন হয়ে যেতে পারে। খেলার দিন বৃষ্টি হবে না বলে আশা করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

সব মিলিয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা আত্মবিশ্বাসী। এ মুহূর্তে যে কাউকে চমকে দিতে পারে। সৌম্য, লিটন দাসের মতো কিছু তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড় আছে। আগের যেকোনো সময়ের তুলনায় বাংলাদেশের ব্যাটিং শক্তিশালী। বোলিংও খারাপ নয়। ওয়ানডের বাংলাদেশ একটু ভিন্নই। খেলোয়াড়রা তাদের সামর্থ্যের সর্বোচ্চটা দিতে পারে তবে ফলাফল বাংলাদেশের পক্ষেই থাকবে বলে সকলের বিশ্বাস।