cosmetics-ad

প্রথম আলোর সম্পাদকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

prothom_alo_editor

ঝিনাইদহ আদালতে দায়ের হওয়া দুটি মামলায় প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। মানহানির অভিযোগ এনে এই মামলা দুটি করেছেন জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার বলুহর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আকিমুল ইসলামের ছেলে তানভির আহম্মেদ ও সাব্দালপুরের যুবলীগ কর্মী মো. সাইফুল ইসলাম।

ঝিনাইদহ আমলি আদালতের (কোটচাঁদপুর) বিচারিক হাকিম মো. সাজ্জাদ হোসেন গতকাল মঙ্গলবার এই আদেশ দেন। মতিউর রহমানের সঙ্গে প্রথম আলোর ঝিনাইদহ প্রতিনিধি আজাদ রহমান ও কোটচাঁদপুরের স্থানীয় সাংবাদিক সুব্রত সরকারের বিরুদ্ধেও পরোয়ানা জারি করা হয়।

ভর্তুকির টাকায় ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে ১৫টি কলের লাঙল কেনায় অনিয়মের অভিযোগ নিয়ে একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে প্রথম আলো। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রথম আলোর সম্পাদক এবং পত্রিকার ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ও স্থানীয় একজন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আটটি মানহানির মামলা করা হয়। মামলাগুলোর বাদী কলের লাঙলের জন্য নির্বাচিত স্থানীয় যুবলীগের নেতা-কর্মীরা। আর প্রথম আলোর ঝিনাইদহ প্রতিনিধি আজাদ রহমান ও স্থানীয় সাংবাদিক সুব্রত সরকারের বিরুদ্ধে অজামিনযোগ্য ধারায় পৃথক দুটি চাঁদাবাজির মামলা করা হয়। এর একটির বাদী কলের লাঙলের ডিলার, অন্যটির বাদী একজন যুবলীগ কর্মী। এর মধ্যে মানহানির দুটি মামলায় গতকাল পরোয়ানা জারি হলো।

প্রথম আলোর আইন কর্মকর্তা আফতাব উদ্দিন সিদ্দিকী জানান, গতকাল আদালতে হাজির হওয়ার বিষয়ে কোনো সমন বিবাদীরা পাননি। মামলায় যে তিনজনকে বিবাদী করা হয়েছে, তাঁদের অফিস বা বাসস্থান কোথাও কোনো সমন গতকাল পর্যন্ত আসেনি।