sentbe-top

যৌনরোগ এড়াতে শীতকালীন অলিম্পিকে সরবরাহ করা হচ্ছে লক্ষাধিক কনডম

দক্ষিণ কোরিয়ায় আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি শীতকালীন অলিম্পিক শুরু হচ্ছে। এ অলিম্পিক উপলক্ষে এখন সেখানে গিয়ে হাজির হয়েছেন বিশ্বের নানা দেশ থেকে অসংখ্য খেলোয়াড় ও কর্মকর্তা। তাদের জন্য এবার অলিম্পিক কর্তৃপক্ষ লক্ষাধিক কনডম সরবরাহ করছেন।

অলিম্পিকে অ্যাথলেট তো বটেই, প্রচুর দর্শক যাবেন পৃথিবীর নানা প্রান্ত থেকে। অলিম্পিকে যেন কোনো যৌন রোগ ও এইডস যেন ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য সতর্ক রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া কর্তৃপক্ষ। এসব মিলিয়ে এই অলিম্পিক্সে যৌনতা অন্যতম বড় চিন্তা। আর সেজন্য সরবরাহ করা হচ্ছে বিপুল পরিমাণ কনডম।

অলিম্পিকের নানা বিষয় সামলাতে স্বাভাবিকভাবেই আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশাসনের রাতের ঘুম ছুটে যাওয়ার কথা। এ জন্য ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে দেশটির সরকার। মোট এক লাখ ১০ হাজার কনডম তৈরি রয়েছে এ চাহিদা মেটানোর জন্য।

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে কয়েক মাস ধরে দুই কোরিয়ার মধ্যে উত্তেজনা চলছে। এ অবস্থায় আগামী মাসে দক্ষিণ কোরিয়ায় বসবে শীতকালীন অলিম্পিক, যা উভয় দেশকে কাছাকাছি আনবে বলে আশা করা হচ্ছে। আসন্ন শীতকালীন অলিম্পিকে উত্তর কোরিয়ার অংশগ্রহণ নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার সাধারণ মানুষের মধ্যে বেশ আগ্রহ তৈরি হয়েছে। অলিম্পিক যেন রূপ নিয়েছে ‘শান্তির অলিম্পিকে’।

এবারের অলিম্পিকে খেলোয়াড়, শিল্পীসহ বড় একটি প্রতিনিধিদল পাঠাতে রাজি হয়েছে পিয়ংইয়ং। অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এক পতাকা নিয়ে হাঁটতেও রাজি হয় উভয় পক্ষ। এ ছাড়া দুই কোরিয়া মিলে যৌথভাবে নারীদের একটি আইস হকি টিম গঠনের সিদ্ধান্তও হয়। এই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতিটি খেলায় ওই হকি দলে অন্তত তিনজন করে উত্তর কোরিয়ার খেলোয়াড় থাকবেন। এর বাইরে দুই কোরিয়ার শিল্পীরা যৌথভাবে অংশগ্রহণ করবেন অলিম্পিকের সাংস্কৃতিক পরিবেশনায়।

এবারের অলিম্পিকে ৯০টি দেশ থেকে মোট ২,৯২৫ জন খেলোয়াড় অংশ নেবেন। আর কনডমের এ হিসাব ধরলে প্রতি খেলোয়াড়পিছু ৩৭টি কনডম দেওয়া হচ্ছে। দক্ষিণ কোরিয়ার কনডম নির্মাতারাই এ কনডমগুলো তৈরি করেছেন।

দক্ষিণ কোরিয়াই অলিম্পিকের সময় প্রথমবারের মতো কনডম বিলি করা শুরু করে। ১৯৮৮ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে সিউলে প্রথমবারের মতো কনডম প্রকাশ্যে বিলি করা হয়। সে সময়ও এইডস প্রতিরোধ অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য ছিল। এরপর থেকে প্রতিবারই অলিম্পিকের সময় কনডম বিলি করা হচ্ছে।

২০১৬ সালে ব্রাজিল অলিম্পিকে সাড়ে চার লাখ কনডম বিলি করা হয়। সে সময় খেলোয়াড়পিছু ৪২টি করে কনডম বরাদ্দ ছিল।

সূত্র : সিএনএন

sentbe-top