sentbe-top

বিনামূল্যে কানাডায় যাওয়ার সহায়তা

canada-immigrationপ্রতিবছর অসংখ্য বাংলাদেশি স্থায়ীভাবে কানাডায় যাওয়ার জন্য আবেদন করেন। কিন্তু অজ্ঞতা, কাগজপত্রের ঝামেলা, সঠিক পরামর্শ না পাওয়া বা দালালের খপ্পরে পড়ে সেই স্বপ্ন পূরণ বাঁধাগ্রস্ত হয় নানাভাবে। তবে এই ঝামেল থেকে বাঁচতে কানাডায় অভিবাসন প্রত্যাশীদের জন্য বাংলা ভাষায় বিনামূল্যে নানাভাবে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে ইমিগ্রেশন অ্যান্ড সেটেলমেন্ট নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

সম্প্রতি এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি তাদের প্রথম বর্ষপূর্তিও উদযাপন করেছে। এ সপ্তাহের শুরুতেই ছুটির দিনের এক সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ জলি রজার ক্যাফেতে কেক কেটে দ্বিতীয় বর্ষে পদার্পণ করে সংগঠনটি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কানাডার ইমিগ্রেশন ও নিয়ম-কানুন বিষয়ে প্রভিন্সভিত্তিক গ্রুপ আলোচনার আয়োজন করা হয়েছিল।

কানাডায় স্থায়ীভাবে বসবাস করতে ইচ্ছুক ‘ইমিগ্রেশন অ্যান্ড সেটেলমেন্ট’ ফেসবুক গ্রুপের প্রায় চার হাজার সদস্যের প্রায় অধিকাংশই এই উদযাপনে অংশ নেন। এই গ্রুপটি মূলত তাদের ওয়েবসাইট, ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে আইইএলটিএস সহায়তাসহ প্রাথমিক ধাপ থেকে শুরু করে একেবারে শেষ পর্যন্ত পুরোপুরি বিনামূল্যে সহায়তা দিয়ে আসছে।

জানা গেছে, ইমিগ্রেশন অ্যান্ড সেটেলমেন্ট গ্রুপটি কানাডায় গমনে সহায়তার পাশাপাশি নতুন অভিবাসীদের চাকুরি, বসবাসসহ বিভিন্ন ধরনের সেবা দিয়ে থাকে। গ্রুপটিতে বিভিন্ন দেশের বাঙালি দেশি-বিদেশিরা স্বেচ্ছাশ্রম দিচ্ছেন। কানাডার ইমিগ্রেশন ও সেটেলমেন্ট সংক্রান্ত সকল খবরের সর্বশেষ আপডেট, ইমিগ্রেশন বিষয়ক প্রশ্নে সঠিক উত্তর দিয়ে থাকেন গ্রুপের সাথে সংশ্লিষ্ট স্বোচ্ছাসেবীরা।

বর্ষপূর্তির ‍দিনে গ্রুপটির প্রধান উদ্যোক্তা মাহি চৌধুরী বলেন, ‘আজকের দিনটাতে আমার অনেক আনন্দ হচ্ছে। অনেকটা ঈদের আনন্দের মতো। আজ থেকে এক বছর আগে ‘ইমিগ্রেশন এ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট’ টীমের ওয়েবসাইটের শুভ সূচনা হয়েছিল। স্পষ্টই মনে পড়ে সেই দিনটির কথা যেদিন সকল অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে কানাডা’র ইমিগ্রেশন এবং সেটেলমেন্ট প্রত্যাশী মানুষদের জন্যে সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাশ্রমভিত্তিক ওয়েবসাইটটির জন্ম এবং পথ চলা শুরু হয়েছিল।’

immigration-to-canadaমাহি চৌধুরী বলেন, ‘বাংলা ভাষাভাষীদের জন্যে কানাডা’র ইমিগ্রেশন এবং সেটেলমেন্ট নিয়ে এ রকম তথ্যসমৃদ্ধ ওয়েবসাইট আর আছে কিনা আমার জানা নেই। পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিভিন্ন বয়সী এবং বিভিন্ন পেশাজীবির ভলান্টিয়ার মানুষগুলো প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছেন কানাডা’র ইমিগ্রেশন এবং সেটেলমেন্ট প্রত্যাশীদেরকে তথ্যগত সহযোগিতা করার জন্যে। একই সাথে স্বেচ্ছাসেবীদের নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধিতেও ‘ইমিগ্রেশন এ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট’ টীমের ভলান্টিয়ারগণ সচেষ্ট।’

গ্রুপটির শুরুর যাত্রা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মূলত ফেসবুক পেজ দিয়ে পথ চলা শুরু হয়েছিল আমাদের। মনে পড়ে যায় সেই দিনগুলোর কথা, যখন দেখতাম কানাডা’র ইমিগ্রেশন প্রত্যাশী অসহায় মানুষজন বিভিন্ন যোগ্যতাবিহীন স্বঘোষিত ইমিগ্রেশন কনসালট্যান্টরূপী দালাল আর ব্যবসায়ীদের দ্বারা প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছেন, আর্থিক এবং মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। সেই থেকেই আমাদের উদ্দেশ্য ছিল কানাডায় আসার ব্যাপারে এই আগ্রহী মানুষগুলোকে কোন আশ্বাস নয় বরং বিনামূল্যে প্রত্যক্ষ সহযোগিতা প্রদান করা।’

গ্রুপটির বিষয়ে প্রধান এই উদ্যোক্তা বলেন, ‘ইমিগ্রেশন কারও ব্যক্তি সম্পত্তি নয়, বরং এটি প্রত্যেকের অধিকার এবং অপার সম্ভাবনার দেশ কানাডা’য় আসতে হলে এই ইমিগ্রেশনের কাজগুলো করার জন্যে একজন শিক্ষিত ব্যক্তির কোন তথাকথিত কনসালট্যান্টের শরণাপন্ন হবার বিন্দুমাত্র দরকার নেই। ‘ইমিগ্রেশন এ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট’ টিমের সহজবোধ্য ওয়েবসাইট, ফেসবুক গ্রুপ, ইউটিউব চ্যানেল আর একঝাঁক ভলান্টিয়ারের নিরলস সহযোগিতায় প্রত্যেকেই তার নিজের ইমিগ্রেশন নিজে করতে সক্ষম।’

প্রতিনিয়ত বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ শুধু উপকারই পাচ্ছেন না বরং ‘ইমিগ্রেশন এ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট’ টিমের ফেসবুক পাবলিক গ্রুপে (বেঙ্গলী স্পিকারর্স) তাদের প্রশ্নগুলোর সঠিক সমাধানও পাচ্ছেন। একই সাথে গ্রুপটির ইউটিউব চ্যানেলের সহায়ক ভিডিওগুলো থেকেও নানাভাবে উপকৃত বা দিকনিদের্শনা পাচ্ছেন।

কানাডা গমনে সহায়তা পেতে নিচের দেয়া ঠিকানাগুলোতে আপনি একবার ঘুরে আসতে পারেন।

ওয়েবসাইট: www.immigrationandsettlement.org
ফেসবুক গ্রুপ: www.facebook.com/groups/immigrationandsettlement/about/
ইউটিউব চ্যানেল: www.youtube.com/immigrationandsettlement

সৌজন্যে- ২৪লাইভনিউজপেপার

sentbe-top